বাংলাদেশি ছাড়া কাউকে দেশের মাটিতে ঢুকতে দেয়া হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১০:২১ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩, ২০১৯

ভারতের আসাম থেকে বাংলাদেশে পুশইনের খবরে আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, কোনোভাবেই বাংলাদেশি ছাড়া কাউকে দেশের মাটিতে ঢুকতে দেয়া হবে না।

মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, যাদের পুশইন করা হচ্ছে তারা বাংলাদেশের নাগরিক কি না আমাদের সুনিশ্চিত হতে হবে। যদি বাংলাদেশের নাগরিক হয় তাহলে আমরা তাদের গ্রহণ করতে পারি। যদি তারা বাংলাদেশের নাগরিক না হয় তাহলে তাদেরকে কোনো ক্রমেই গ্রহণ করা হবে না।

তিনি বলেন, যাদের পুশইন করা হচ্ছে তাদের কেউ কেউ বাঙালি, তবে এরা বাংলাদেশি কি না সঠিকভাবে এখনো নিশ্চিত নই। বাঙালিদের ভেতরে ঢোকানোর চেষ্টা করেছেন। আমাদের বিজিবি কয়েক জায়গা থেকে এদেরকে ঢুকতে দেয়নি, অ্যালাউ করেনি। এদের সংখ্যা হাজার হাজার নয়, কয়েকশ’।

মন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গারা যারা ভারতে বিভিন্নভাবে ঢুকেছিল তারাও আসতে চেয়েছিল। কিন্তু সুনিশ্চিত না হয়ে কাউকে দেশে ঢুকতে দেয়া হবে না। আমাদের দেশের সুনিশ্চিত নাগরিক হলে কিভাবে গ্রহণ করা হবে সেটা দেখবো।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অনেকে বিভিন্ন সময় ভারতে যায়, ভিসার মেয়াদ শেষ হলে তাদের অনেক সময় পাঠিয়ে দেয়। এক্ষেত্রে ভিসার মেয়াদ শেষ হয়েছে,কিন্তু আসতে দেরি হয়েছে এমন জটিলতার ক্ষেত্রে আমাদের নাগরিকদের অবশ্যই আমরা গ্রহণ করবো। তবে এতে আতঙ্কের কোনো কারণ নেই।

এভাবে পুশইনের চেষ্টা কোন উস্কানিমূলক নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, যদি হাজার হাজার বা শত শত হতো তাহলে আলোচনার বিষয় হতো। কিন্তু এখানে অল্প সংখ্যক মানুষ। তবে এ বিষয়ে ভারত এখন পর্যন্ত অফিসিয়ালি কোনো চিঠি দেয়নি। যারা আসতে চেষ্টা করছে তারা দেশের নাগরিক হলে গ্রহণ করতে আমরা প্রস্তুত।

ভারত থেকে জোর করে তাদের বাংলাদেশে পাঠানো হচ্ছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত অফিসিয়ালি ভারত কিছু জানায়নি। তাহলে জোর করে পাঠাচ্ছে কেন বলব। হয়ত কিছু পুশইন বেড়েছে, অস্বীকার করছি না। তবে কোনো ভারতীয় নাগরিক পুশইনের মাধ্যমে এখানে আসবে তা চিন্তাও করি না।