Categories
জাতীয়

‘স্থিতিশীল উন্নয়ন চাইলে জিডিপি বাড়াতে হবে’ ।। songbadprotidinbd.com

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেছেন, বর্তমানে দেশে ১৬ কোটির বেশি জনগণ থাকলেও কর দেয় মাত্র এক শতাংশ। এটি আমাদের জন্য গৌরবের বিষয় নয়। এশিয়ার মধ্যে আমাদেরই সবচেয়ে কম সংখ্যক মানুষ কর দেয়।

তিনি বলেন, সরকার চায় সবাই কর দিক। যদি আমরা স্থিতিশীল উন্নয়ন চাই তাহলে অবশ্যই কর জিডিপির অনুপাত বাড়াতে হবে। এজন্য করযোগ্য সবাইকে কর দিতে হবে।

শনিবার সকালে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সামনে আয়কর দিবসের কর্মসূচির উদ্বোধন করে তিনি এ কথা বলেন।

সঙ্গীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, সঙ্গীতের লোকেরা কর দিতো না। এখন আমরা কর দিচ্ছি। কারণ যেদেশে বসবাস করছি, সেই দেশের উন্নতির জন্য আমাদের কর দিতে হবে। তাই নিজেরা কর দেয়ার পাশাপাশি সবাইকে কর দেয়ার জন্য উৎসাহিত করছি।

নাট্যকার বৃন্দাবন দাস বলেন, কর দেয়াটা আমাদের দায়িত্ব। এক টাকা দিয়ে আমরা অনেক সুবিধা ভোগ করি। তবে সৃজনশীল ও হয়রানিমুক্তভাবে কর আদায়ের জন্য এনবিআরকে আহ্বান জানাচ্ছি।

নাট্যকার ও অভিনেতা ড. ইমামুল হক বলেন, কর দেয়ার মানেই হল, দেশকে ভালোবাসা। দেশের উন্নয়নের জন্য আমরা কর দিয়ে থাকি। আসুন সবাই সরকারকে কর দেই।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন- চিত্রনায়ক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ সিদ্দিক, ওমর সানি, চিত্র নায়িকা মৌসুমী, পপি, চঞ্চল চৌধুরীসহ বিভিন্ন অভিনেতা অভিনেত্রীরা।

এরপর এনবিআরের সামনে থেকে ঘোড়ার গাড়িতে করে র‌্যালিতে অংশ নেন এনবিআর চেয়ারম্যান, অভিনেতা-অভিনেত্রী, নাট্য ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, সাহিত্যিকসহ সবাই। র‌্যালিটি এনবিআরের সামনে থেকে কাকরাইল, মৎস্য ভবন, প্রেসক্লাব, পল্টন হয়ে আাবার এনবিআরের সামনে এসে শেষ হয়।

উল্লেখ্য, এবারের জাতীয় আয়কর দিবস-২০১৯ এর স্লোগান ‘সবাই মিলে দেব কর, দেশ হবে স্বনির্ভর’ একইসঙ্গে দিবসটির প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘কর প্রদানে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ, নিশ্চিত হোক রূপকল্প বাস্তবায়ন।’ রাজধানী ঢাকাসহ দেশের সব বিভাগীয় শহরেও জাতীয় আয়কর দিবসের বর্ণাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *