আজ ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২২শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

২ মাস ধরে নাতনির সর্বনাশ করল দাদা

নিজের নাতনিকে সর্বনাশ করার অভিযোগ উঠেছে দাদার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দাদাকে আটক করেছে পুলিশ। পশ্চিমবঙ্গের সোনাপুরের এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

সোনারপুরের খুড়িগাছি গ্রামের বাসিন্দা ওই নাবালিকা।

জানা গেছে, ওই নাবালিকাকে দিনের পর দিন লাগাতার সর্বনাশ করে আসছিলেন দাদা। পাশের গ্রাম গঙ্গা জোয়ারায় সেলাই শিখতে যেত নাতনি। দাদাকে সঙ্গে করে নিয়েই যেতো সে। একদিন যাওয়ার পথে নির্ঝণ যায়গায় নিয়ে গিয়ে তার সর্বনাশ করে দাদা। এরপর এ ঘটনা কাউকে বলতে নিষেধ করে দাদা। এরপর টানা দুই মাস এভাবে তাকে যৌন নির্যাতন করেন দাদা।

দিনের পর দিন তার ওপর এমন নির্যাতনে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে নির্যাতিতা। বুঝতে পেরে মেয়েকে চেপে ধরেন মা। সব কথা খুলে বলে মেয়ে। গোটা ঘটনা গ্রামে জানাজানি হতেই এলাকা ছেড়ে পালায় ওই দাদা।

সোনারপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে নির্যাতিতার পরিবার। তারপর অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

Comments are closed.

      আরও নিউজ