Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / অন্যান্য / জমির রেকর্ডের খসড়া প্রকাশের পর যা করা জরুরি – Songbad Protidin BD

জমির রেকর্ডের খসড়া প্রকাশের পর যা করা জরুরি – Songbad Protidin BD

  • ০৯-০৮-২০১৭
  • Land-Recordসংবাদ প্রতিদিন বিডি প্রতিবেদক: ২৯ বিধি অনুযায়ি তসদিক শেষ হওয়ার পর ভূমি রেকর্ডের খসড়া প্রকাশিত হয় যা ভূমি মালিক বা তার প্রতিনিধিদের পর্যবেক্ষণের জন্য ৩০ (ত্রিশ) কার্য দিবস খোলা রাখা হয়। এই খসড়া রেকর্ডে যদি কোন ভূল বা ত্রুটি লক্ষ্য করেন তাহলে ৩০ ধারায় আপত্তি কেস দাখিল করতে হবে।

    এখানে বিশেষভাবে উল্লেখ্য যে, জমি জরিপের সময় কিছু অসাধু ব্যক্তি আবির্ভূত হয়, দালাল নামে চিহ্নিত এই ব্যক্তিগণ আপনার ভূমির জরিপ কর্মকান্ড সহজভাবে করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আপনাকে প্রতারিত করতে পারে। এক্ষেত্রে ঐসব অনাকাঙ্খিত ব্যক্তিদের এড়িয়ে নিজে অথবা আপনার বিশ্বস্ত প্রতিনিধিকে দিয়ে জরিপের কর্মকান্ড সমাধান করাই ভাল।

    ৩০ ধারা আপত্তি কেস দাখিলের পর কেস শুনানীর সময় আপনার আপত্তির স্বপক্ষে দলিল দস্তাবেজ এবং সাক্ষীদের উপস্থিত করতে হবে। এই আপত্তি কেসের রায় যার বিপক্ষে যাবে তিনি প্রয়োজন মনে করলে ৩০ দিনের মধ্যে আইন অনুযায়ি আপীল দায়ের করতে পারেন। এক্ষেত্রেও আপীল দায়েরকারীকে তার স্বপক্ষে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও স্বাক্ষী কোর্টে হাজির করতে হবে।

    ভূমি মালিকদের মুদ্রিত রেকর্ড চূড়ান্ত প্রকাশনার সময় পূনরায় পর্যবেক্ষণের সুযোগ দেয়া হয়। সরকারি নির্ধারিত মূল্য পরিশোধ করে ভূমি মালিকগণ ইচ্ছা করলে মুদ্রিত খতিয়ানের কপি ও নক্সা ক্রয় করতে পারেন। মুদ্রিত রেকর্ড পর্যবেক্ষণের সময় যদি আপনি কোনরূপ গাণিতিক, করণিক, মুদ্রণজনিত ভুল অথবা কোনরূপ জালিয়াতি লক্ষ্য করেন তাহলে সেটেলমেন্ট অফিসে ৫৩৩/৫৩৪ ধারায় তা সংশোধনের জন্য দরখাস্ত পেশ করবেন। আপনার দরখাস্ত পাওয়ার পর সেটেলমেন্ট অফিসার তদন্ত করবেন এবং কোনরূপ ভুলের প্রমাণ পেলে তিনি গেজেট বিজ্ঞপ্তি জারির পূর্বে বিধি মোতাবেক সংশোধন করবেন। এছাড়া রেকর্ড সংক্রান্ত কোনরূপ সমস্যা দেখা দিয়ে বিষয়টি সাথে সাথে সেটেলমেন্ট অফিসার,সহকারি কমিশনার, ভূমি চার্জ অফিসার অথবা সংশ্লিষ্ট বিভাগে কর্মকর্তাদের দৃষ্টিগোচরে আনবেন।

    বদর সম্পর্কিত ভূমি বা জমি জরিপ কর্মকান্ডে কারিগরী কার্যক্রমে বদর একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। একজন জরিপ কর্মীর বদর বিষয়ে জ্ঞান থাকা আবশ্যক। এছাড়া ভূমি মালিকদেরও তসদিক, আপত্তি ও আপীল পর্যায়ে বদরের আবেদনের নিয়ম কানুন জানা আবশ্যক।

    (বদর কী? এবং বদরের প্রয়োজনীয়তার বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চোখ রাখুন আগামীকালের পর্বে)
    জনস্বার্থে: সংবাদ প্রতিদিন বিডি

    (Visited 20 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *