Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / কর্পোরেট নিউজ / মার্কিন ব্যাংকগুলোতেও সাইবার হামলার আশঙ্কা

মার্কিন ব্যাংকগুলোতেও সাইবার হামলার আশঙ্কা

  • ০৮-০৬-২০১৬
  • বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনার পর যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতেও সাইবার হামলার আশঙ্কা করছে মার্কিন কর্তৃপক্ষ। এজন্য তারা এ বিষয়ে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছে। পাশাপাশি তাদের সাইবার সিকিউরিটি ব্যবস্থা পর্যালোচনা করারও পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

    বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ইউএস ফেডারেল ফিন্যান্সিয়াল ইন্সটিটিউশনাল এক্সামিনেশন কাউন্সিল মঙ্গলবার এই নির্দেশনা দিয়েছে। সংস্থাটি বলছে, আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর উচিত তাদের ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা, তথ্য-প্রযুক্তির নিয়ন্ত্রণ আর জালিয়াতি প্রতিরোধ, যাচাইকরণসহ তারবার্তা লেনদেনের পুরো প্রক্রিয়াটি পর্যালোচনা করা।

    গত ফেব্রুয়ারিতে নিউইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে ভুয়া নির্দেশনা পাঠিয়ে ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি করে হ্যাকাররা। যার বড় একটি অংশ ফিলিপাইনে সরিয়ে নেয়া হয়, আরেকটি অংশ নেয়া হয় শ্রীলঙ্কায়।

    সেই প্রেক্ষাপটে দুই সপ্তাহে আগে মার্কিন ব্যাংকগুলোয় সম্ভাব্য সাইবার হামলার সম্ভাবনা খতিয়ে দেখার পরামর্শ দিয়েছিল ফেডারেল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন বা এফবিআই। সাইবার হামলাকারীদের কারিগরি তথ্য দিয়ে এফবিআই সতর্কবার্তায় বলছে, যে চক্রটি এ ধরণের কাজে জড়িত রয়েছে, তাদের নজরদারি বা হামলার লক্ষ্যবস্তুর মধ্যে এসব প্রতিষ্ঠান রয়েছে কিনা, সেটা জানতে ব্যাংকগুলোর কারিগরি নেটওয়ার্কে খুঁজে দেখার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

    সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক সাইবার হামলার ঘটনাগুলো যুক্তরাষ্ট্রের বড় প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্যও হুমকি হয়ে উঠতে পারে, বিশেষ করে যারা তথাকথিত সুইফট লেনদেন ব্যবস্থাটি ব্যবহার করে।

    ফেব্রুয়ারিতে চুরির ঘটনাটি ঘটলেও বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ গত মার্চে চুরির বিষয়টি প্রকাশ করে। পরবর্তীতে ইকুয়েডর, ভিয়েতনাম আর ফিলিপাইনেও একটি করে ব্যাংকে সাইবার হামলার তথ্য জানা যায়।

    মার্কিন ফেডারেল রিজার্ভ সিস্টেমের নিরাপত্তা টিমের সাবেক সদস্য ড্যান গুইডো আশংকা প্রকাশ করে বলেন, হ্যাকার গ্রুপ এরকম আরো হামলা চালাতে পারে। কারণ সাইবার হামলার বিষয়ে দিনে দিনে তারা আরো গোছালো ও দক্ষ হয়ে উঠছে।

    (Visited 3 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *