Templates by BIGtheme NET
Home / জাতীয় / ডেঙ্গুর ঝুঁকিতে পুরো ঢাকা: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

ডেঙ্গুর ঝুঁকিতে পুরো ঢাকা: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • ২৯-০৭-২০১৯
  • image-81356-1564326144সংবাদ প্রতিদিন বিডি ডেস্কঃ  পুরো ঢাকা শহরই ডেঙ্গু জ্বরের ঝুঁকিতে রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ। রোববার বিকেলে মহাখালীতে স্বাস্থ্য অধিদফতরে ডেঙ্গুর বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি।

    ইতোপূর্বে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা চিহ্নিত করতে একটি জরিপ করা হয়। সেই জরিপের সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে ডা. আবুল কালাম বলেন, জরিপের ডাটা সংগ্রহের কাজ আমরা গতকাল শেষ করেছি। সব কাজ শেষ হওয়ার পরে আমরা এ বিষয়ে পূর্ণাঙ্গভাবে জানাতে পারবো। তবে এখন পুরো ঢাকা শহরই ঝুঁকিপূর্ণ।

    তিনি বলেন, ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব নিয়ে দেশের মানুষ উদ্বেগে আছে। তাই আমরা প্রতিদিনই মিডিয়ার মাধ্যমে সবাইকে ডেঙ্গু পরিস্থিতির আপডেট জানাতে চাই। প্রতিদিনই এ বিষয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করা হবে। এছাড়া, প্রতিটি হাসপাতালও একজন করে মুখপাত্রের নাম দেবে। তার সঙ্গে কথা বলেই ওই হাসপাতালের ডেঙ্গু রোগী ও চিকিৎসার সব তথ্য জানা যাবে।

    মহাপরিচালক জানান, ডেঙ্গুতে আক্রান্ত যাদের অবস্থা গুরুতর (ক্রিটিক্যাল), তাদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে চিকিৎসা নিশ্চিত করা হচ্ছে। তবে জোন-২-তে যারা আছেন, অর্থাৎ যাদের ডেঙ্গু ধরা পড়েছে, তাদের চিকিৎসাতেও গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

    এর আগে দুপুরে, বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকগুলোর প্রতিনিধিদের সঙ্গে ডেঙ্গু পরীক্ষার খরচ নিয়ে এক বৈঠকে অংশ নেন স্বাস্থ্য অধিদফতরে মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কলাম আজাদ।

    সেখানে প্রাথমিকভাবে ডেঙ্গুর যে পরীক্ষাগুলো রয়েছে সেগুলো সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে এবং বেসরকারি হাসপাতালে সর্বোচ্চ ৫০০ টাকায় করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

    এ প্রসঙ্গে ডা. আবুল কালাম বলেন, সরকারি হাসপাতালগুলোকে এই পরীক্ষা বিনামূল্যেই করতে বলা হয়েছে। এছাড়া প্রতিটি হাসপাতালেই ডেঙ্গু রোগীর চিকিৎসার জন্য একটি ওয়েলকাম ডেস্ক বা ওয়ান স্টপ সার্ভিস সেন্টার চালু করতে বলা হয়েছে।

    ডেঙ্গু জ্বরের চিকিৎসায় দেশে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন অনুসরণ করা হচ্ছে জানিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, আমরা আগামী সপ্তাহে আবার তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসবো। আমরা যে গাইডলাইন অনুসরণ করছি, তা হালনাগাদ করার প্রয়োজন হলে তারা জানাবে। আমরাও সে অনুযায়ী গাইডলাইন আপডেট করব। তা না হলে বর্তমান গাইডলাইনই আমরা মেনে চলব।

    সারাদেশে ডেঙ্গু বিষয়ে সচেতনতা গড়ে তুলতে সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলোকে নিয়ে উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে জানান ডা. আবুল কালাম আজাদ। তিনি বলেন, আগামী ১ আগস্ট সব সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ এলাকার স্কুল-কলেজগুলোতে যাবেন। তারা নিজ নিজ এলাকা ও বাসাবাড়ির পরিচ্ছন্নতাসহ ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও চিকিৎসায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ প্রসঙ্গে পরামর্শ দেবেন। এছাড়া আমরা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে ১০টি মনিটরিং টিম গঠন করছি। তারা বিভিন্ন এলাকার ডেঙ্গু পরিস্থিতি মনিটরিং করবে।

    (Visited 6 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *