Templates by BIGtheme NET
Home / জাতীয় / প্রিয়ার বিরুদ্ধে তড়িঘড়ি করে কোনো ব্যবস্থা নয় : ওবায়দুল কাদের

প্রিয়ার বিরুদ্ধে তড়িঘড়ি করে কোনো ব্যবস্থা নয় : ওবায়দুল কাদের

  • ২১-০৭-২০১৯
  • image-98076নিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতন সম্পর্কে প্রিয়া সাহা যে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন, এ বিষয়ে তার বিরুদ্ধে তড়িঘড়ি করে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না।

    রবিবার (২১ জুলাই) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ঢাকা মেট্রোরেল নেটওয়ার্কের সময়বদ্ধ পরিকল্পনার ব্র্যান্ডিং বিষয়ক সেমিনার এবং লাইসেন্স হস্তান্তর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

    ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা, তার বিরুদ্ধে তড়িঘড়ি করে কোনো ব্যবস্থা নয়। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতন সম্পর্কে প্রিয়া সাহা যে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন, এ বিষয়ে তাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিতে হবে। তিনি কোন উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেছেন তা জানতে হবে, এরপর তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

    ইতোমধ্যে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ঢাকায় দুটি মামলা করা হয়েছে-এমন প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলার জন্য রাষ্ট্রপক্ষের সম্মতি নেয়ার পর গৃহীত হয়। আমাদের মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রীও তার বিরুদ্ধে মামলা করতে চেয়েছিলেন। আমি ব্যক্তিগতভাবে এ বিষয়ে নিষেধ করেছি। কারণ তড়িঘড়ি করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা ঠিক নয়। তাকে আত্মপক্ষের সমর্থনের সুযোগ দিতে হবে। এছাড়া এ বিষয়ে আইনমন্ত্রী ও মুক্তিযু্দ্ধবিষয়ক মন্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে।

    প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ ঢাকায় দুটি এবং ঢাকার বাইরে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি মামলার আবেদন করা হয়েছে।

    ১৬ জুলাই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ধর্মীয় নির্যাতনের শিকার হওয়া কয়েকজন ব্যক্তি ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সেখানে চীন, তুরস্ক, উত্তর কোরিয়া, মিয়ানমারসহ ১৭টি দেশের নির্যাতিত ব্যক্তিরা ছিলেন।

    সেখানে নিজেকে বাংলাদেশি পরিচয় দেয়া প্রিয়া সাহা বলেন, ‘স্যার, আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি। সেখানে ৩৭ মিলিয়ন হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান বিলীন হয়ে গেছে। দয়া করে আমাদের সাহায্য করুন। আমরা বাংলাদেশেই থাকতে চাই। সেখানে এখনো ১৮ মিলিয়ন সংখ্যালঘু মানুষ রয়েছে। আমার অনুরোধ দয়া করে আমাদের সাহায্য করুন। আমরা আমাদের দেশ ছাড়তে চাই না। শুধু থাকার জন্য সাহায্য করুন।’

    তিনি বলেন, ‘আমি আমার বাড়ি-ঘর হারিয়েছি, তারা আমার বাড়ি-ঘর জ্বালিয়ে দিয়েছে। তারা আমার জমিজমা দখল করে নিয়েছে। কিন্তু তারা (সরকার) কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। এখন পর্যন্ত।’

    এ সময় ট্রাম্প ওই নারীকে প্রশ্ন করেন, ‘কারা জমি দখল করেছে, করা বাড়ি-ঘর দখল করেছে?’ ট্রাম্পের প্রশ্নের উত্তরে ওই নারী বলেন, ‘তারা মুসলিম মৌলবাদী গ্রুপ এবং তারা সব সময় রাজনৈতিক আশ্রয় পায়। সব সময়ই পায়।’

    ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশ নিয়ে এমন অভিযোগের ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। তার বক্তব্য নিয়ে ইতোমধ্যে ব্যাপক বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, এক পর্যায়ে ট্রাম্প নিজেই সহানুভূতির সঙ্গে এই নারীর সঙ্গে হাত মেলান।

    প্রিয়া সাহা আর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যকার কথোপকথন প্রকাশ পেলে সমালোচনার ঝড় ওঠে। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকেও তীব্র নিন্দা জানানো হয়েছে।

    (Visited 3 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *