Templates by BIGtheme NET
Home / জাতীয় / পরোয়ানা থাকলে মিজান অবশ্যই গ্রেফতার হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ।। songbadprotidinbd.com

পরোয়ানা থাকলে মিজান অবশ্যই গ্রেফতার হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ।। songbadprotidinbd.com

  • ২৬-০৬-২০১৯
  • image-96363সংবাদ প্রতিদিন বিডি প্রতিবেদকঃ  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকলে তিনি অবশ্যই গ্রেফতার হবেন।

    তিনি আরো বলেন, এছাড়া ডিআইজি মিজান যদি আত্মসমর্পন করতে চান, তাও করতে পারবেন। তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

    রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট অডিটোরিয়ামে বুধবার ‘মাদক দ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী’ আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান।

    এখনো কেন ধরা হয়নি, এমন প্রশ্নে জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সুনির্দিষ্ট গ্রেফতারি পরোয়ানা না থাকলে সরকারি কোনো উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করা যায় না।

    ডিআইজি মিজান আত্মগোপনে বিদেশে চলে যেতে পারেন কিনা এমন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তিনি দেশে আছেন কি নেই এরকম কোনো কিছু শুনিনি। তার তো দেশেই থাকার কথা।

    এর আগে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, মাদক নির্মূল করতে বর্তমান সরকার বদ্ধপরিকর। আমরা ডিমান্ড, সাপ্লাই ও পুনর্বাসনের বিষয়ে সমানতালে কাজ করছি। ডিমান্ড হ্রাসের ক্ষেত্রে আমরা মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন সৃষ্টি করার দিকে জোর দিচ্ছি। এ আন্দোলনে সর্বস্তরের জনগণকে যুক্ত করে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে।

    তিনি বলেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর গত বছর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৭ হাজার ৮৯৮টি সভা আয়োজন করেছে। ২৮ হাজারেরও বেশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাদকবিরোধী কমিটি করা হয়েছে।

    তিনি আরো বলেন, সাপ্লাই হ্রাস করতে বর্ডার এলকায় বিজিবি ও কোস্টগার্ডকে শক্তিশালী করা হয়েছে। এছাড়াও আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে।

    মন্ত্রী বলেন, কোনো মাদক ব্যবসায়ীকেই ছাড় দেয়া হবে না। হয় তাকে আত্মসমর্পণ করতে হবে, না হয় তাদের কি পরিণতি হবে তারা সেটা ভালভাবেই জানেন। অবৈধ মাদক ব্যবসা, মাদক চোরাচালান আর দেশের মাটিতে করতে দেয়া হবে না। যারা অবাধ্য তাদের ব্যবস্থা নিরাপত্তা বাহিনী করবেন। আমরা কিছুতেই আমাদের যুব সমাজকে হারিয়ে যেতে দেবো না।

    তিনি বলেন, আমাদের দেশ মাদক উৎপাদন করে না। তবে আমরা মাদকের রুট হিসেবে পরিচিত হয়ে গেছি। কেননা আমাদের চারপাশে সীমান্ত এলাকা আর এই সীমান্ত এলাকা দিয়েই ঢুকছে মাদক। আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী চেষ্টা করছে এগুলো রুট বন্ধ করে দিতে।

    যারা মাদকসেবী তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে সমানতালে কাজ করার কথা উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, সরকারি মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রে আসন বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া সরকারি হাসপাতালগুলো ছাড়াও বেসরকারি হাসপাতালেও মাদকাসক্তদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

    মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের মহাপরিচালক জামাল উদ্দীন আহমেদের সভাপতিত্বে সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি শামসুল হক টুকু, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা ও সেবা বিভাগের সচিব মোহাম্মদ শহিদুজ্জামান, ডা. অরূপ রতন চৌধুরী প্রমুখ।

    (Visited 9 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *