Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / সারাবাংলা / ঢাকা / মাকে বাড়িছাড়া করতে চাইছে সন্তান ।। songbadprotidinbd.com

মাকে বাড়িছাড়া করতে চাইছে সন্তান ।। songbadprotidinbd.com

  • ২৬-০৪-২০১৯
  • image-70540-1556282392নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: প্রয়াত স্বামীর ভিটা ছাড়া করার পাঁয়তারার অভিযোগে সন্তানের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মা ফরিদা বেগম।

    বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন তার মেয়ে মুন ইসলাম শাকিল, মেজো ছেলে সাব্বির আহমেদ হিমেলের স্ত্রী রুমা।

    সংবাদ সম্মেলনে ফরিদা বেগম বলেন, নারায়ণগঞ্জ বন্দরের নবীগঞ্জ এলাকার ফরিদা বেগমের স্বামী ১৩ বছর আগে মারা গেছেন। স্বামীর মৃত্যুর পর চার ছেলে ও দুই মেয়েকে নিয়ে স্বামীর দোতলা বাড়িতেই বসবাস করছিলেন তিনি। কিন্তু দুই বছর আগে তৃতীয় ছেলে তানভীর আহমেদ সোহেল প্রতারণার মাধ্যমে মা ও অন্যান্য ভাই-বোনদের বঞ্চিত করে বাবার পুরো সম্পত্তি লিখিয়ে নেন নিজের নামে। সোহেলকে সহযোগিতা করেন মেজো ছেলে সাব্বির আহমেদ হিমেলের সাবেক স্ত্রী কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগ নেত্রী শারমিন আমিরসহ আরো কয়েকজন।

    এ সময় বৃদ্ধা ফরিদা বেগম অভিযোগ করে বলেন, বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে শারীরিক ও মানসিকভাবে অত্যাচার করা হচ্ছে তাকে এবং বঞ্চিত ভাই-বোনদের। বিভিন্ন প্রভাবশালী ব্যক্তির সাথে সখ্য আছে প্রচার করে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছেন যুব মহিলা লীগের নেত্রী শারমিন আমির।

    পুলিশের কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ করলেও কোনো সহায়তা করেনি এবং মামলাও গ্রহণ করেনি বলে অভিযোগ ফরিদা বেগমের।

    সংবাদ সম্মেলনে ফরিদা বেগমের মেয়ে রুমা জানান, প্রতারণা করে ভাই সোহেল আহমেদ তাদের সম্পত্তি লিখে নিয়ে মা ও তাদের সবাইকে বাড়িছাড়া করার পাঁয়তারা করছেন। বাড়িতে ঢুকতে চাইলে মায়ের হাত-পা কেটে দেবেন বলে হুমকিয়ে দিয়েছেন সোহেলের স্ত্রী সায়মা আহমেদ।

    অভিযোগের বিষয়ে তানভীর আহমেদ সোহেল বলেন, এসব অভিযোগ মিথ্যা। আমার মা ও ভাই নিচতলায় থাকেন। ৭ শতাংশ বাড়ির সাড়ে ৪ শতাংশ আমার নামে আর বাকিটা জাপান প্রবাসী আমার বড় ভাইয়ের নামে। বড় ভাই আমাকে দেখাশোনা করতে বলেছেন। আমি চাইলে তো সবাইরে বাড়ি থেকে বের করে দিতে পারি। কিন্তু আমি তো সেটা করিনি। এ বিষয়ে পুলিশ তদন্তে এসে সব দেখে গেছে।

    বন্দর থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, আমার কাছে সোহেলের মা মৌখিক অভিযোগ জানিয়েছিলেন। আমি তাদের বাড়িতে পুলিশ পাঠিয়ে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলেছি। মা ওই বাড়িতে থাকবেন এবং তাকে কোনো রকমের হুমকি বা অত্যাচার যেন না করা হয় সে বিষয়েও সোহেলকে বলেছি। তবে এরপর তারা আর আমার সাথে যোগাযোগ করেনি। মায়ের উপরে কোন কিছু নাই। তিনি যদি অত্যাচারের শিকার হন তাহলে আমাকে অভিযোগ দিতে বলেন, আমি কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

    (Visited 4 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *