Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / সংবাদ প্রতিদিন » স্পেশাল / গুজব রোধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কঠোর নজরদারি ।। songbadprotidinbd.com

গুজব রোধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কঠোর নজরদারি ।। songbadprotidinbd.com

  • ০৭-০২-২০১৯
  • image-88709খলিলুর রহমান: একাদশ জাতীয় নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার লক্ষে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কড়া নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। গত একমাস থেকে বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে নজর রাখছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সোশ্যাল মিডিয়া মনিটরিং টিম। ইতোমধ্যে গুজব বা অপপ্রচারের সাথে জড়িত বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। এছাড়াও নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যদি কেউ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অপপ্রচার বা গুজব ছাড়ানোর চেষ্টা করেন তাহলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।
    জানা গেছে, নির্বাচন উপলক্ষে চলতি মাসের শুরু থেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোকে নজরদারি করছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এ ধারাবাহিকতায় গত ১৮ ডিসেম্বর সাভার থেকে কাজী কামরুজ্জামান (৬৩) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) একটি টিম। এসময় তার কাছ থেকে অপপ্রচার চালনা কাজে ব্যবহৃত চারটি মোবাইল ফোন, ছয়টি সিম কার্ড ও একটি ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়।
    কামরুজ্জামানের নামে ফেসবুকে বিভিন্ন ছদ্মনামে অনেকগুলো আইডি রয়েছে আটককৃত ব্যক্তির। সে সামাজিক যোগযোগমাধ্যম ফেসবুকে আক্রমণাত্মক, মিথ্যা, ভিত্তিহীন, মানহানিকর তথ্য প্রকাশ ও প্রচার করে সরকারি বিভিন্ন সংস্থার মধ্যে বিদ্বেষ সৃষ্টি করে আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোসহ আন্তঃ-বাহিনীর মধ্যে বিশৃঙ্খলা ও সংঘাত সৃষ্টি করার চেষ্টা করে আসছিল বলে জানিয়েছেন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।
    এর আগে গত ১৫ ডিসেম্বর আবুল কালাম আজাদ (৩৯) নামের আরেকজনকে চট্টগ্রাম থেকে আটক করে পুলিশ। তার কাছ থেকে একটি মোবাইল ফোন ও এর ভিতরে থাকা একটি গ্রামীণ ও একটি রবি সিমকার্ড জব্দ করা হয়। ১২ ডিসেম্বর মো. রবিউল আউয়াল ওরফে সোহাগ (২৪) নামের আরেকজনকে গ্রেফতার করা হয়। তার কাছ থেকেও একটি মোবাইল, একটি ল্যাপটপ ও আপত্তিকর পোস্টের আট পাতা স্ক্রিনশট এবং পরবর্তীতে তার দেখানো মতে কুমিল্লা থেকে একটি কম্পিউটার সিপিইউ জব্দ করা হয়।
    জানা গেছে, রবিউল গত এক মাস ধরে অনলাইন পোর্টাল ও ফেসবুক পেইজে প্রচারিত খবর বা পোস্ট করে। যা ছিল রাষ্ট্র, সরকার, সরকারি প্রতিষ্ঠান ও সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার। আলামত হিসেবে ঐ সমস্ত অপপ্রচারের সংবাদ স্ক্রিন শর্ট নিয়ে সংরক্ষণ করা হয়।
    এর আগে গত ৮ ডিসেম্বর রাজধানীর শেরে বাংলানগর থেকে মো. মাহফুজুল হক নামের একজনকে আটক করা হয়। ২ ডিসেম্বর রাজধানীর মগবাজার এলাকা থেকে মো. শাহিন আলম হৃদয় (২০) নামের একজনকে গ্রেফতার করা হয়। তার কাছ থেকেও একটি মোবাইল ফোন, দুটি সিমকার্ড ও একটি মেমোরি কার্ড উদ্ধার করা হয়।
    তাদের বিরুদ্ধে পৃথক মামলা দায়ের করা হয়েছে জানিয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ কমিশনার মো. মাসুদুর রহমান বলেন, নির্বাচন উপলক্ষে অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে পুলিশ কঠোর অবস্থানে রয়েছেন। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার সকালে অভিযানের অংশ হিসেবে নোয়াখালীর সেনবাগ থেকে ইউটিউবে সেনাবাহিনী ও পুলিশকে নিয়ে ভুয়া ভিডিও প্রকাশের অভিযোগে জিয়াউর রহমান নামের একজনকে আটক করা হয়েছে।
    তিনি আরো জানান, তার কাছ থেকে মোবাইল, ল্যাপটপ, সিম জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া তার কাছ থেকে ওই ইউটিউব চ্যানেলটির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়া হয়। তিনি জানান, জিয়াউর রহমান উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তার ইউটিউব চ্যানেলে সেনাবাহিনী দ্বারা পুলিশকে মারপিটের ভুয়া ভিডিও আপলোড করে জননিরাপত্তা ক্ষতিগ্রস্ত করার চেষ্টা করে। আসলে এই ভিডিও ছিল বাংলাদেশ নেভির একটি বিশেষ প্রশিক্ষণের অংশবিশেষ।
    এদিকে পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাবও গুজব রোধে মাঠে কাজ করছে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তাদেরও সোশ্যাল মিডিয়া মনিটরিং টিম রয়েছে। ওই টিমের মাধ্যমে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ।
    তিনি জানান, নির্বাচনে ভুয়া নিউজ ও গুজব যাচাইয়ের জন্য র‌্যাবের আলাদা টিম কাজ করছে। এছাড়াও র‍্যাব সাইবার নিউজ ভেরিফিকেশন সেন্টার নামে একটি ফেসবুক পেজ খোলা হয়েছে। সেই পেজের মাধ্যমে গুজব যাচাই-বাছাই করা যাবে।
    এদিকে, র‌্যাব ও পুলিশের পাশাপাশি সিআইডিও গুজব প্রতিরোধে কাজ শুরু করছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সহকারী পুলিশ সুপার শারমিন জাহান। তিনি জানান, নির্বাচন উপলক্ষে যারা বিদেশে বসেও গুজব ছাড়াচ্ছেন তাদের চিহ্নিত করা হচ্ছে। পরে আইনি প্রক্রিয়ায় তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    (Visited 2 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *