Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / ফেনী / ফেনী-১: নৌকার পক্ষে মাঠে নেই আওয়ামী লীগ ,খালেদা জিয়ার জন্য ঐক্যবদ্ধ বিএনপি ।। songbadprotidinbd.com

ফেনী-১: নৌকার পক্ষে মাঠে নেই আওয়ামী লীগ ,খালেদা জিয়ার জন্য ঐক্যবদ্ধ বিএনপি ।। songbadprotidinbd.com

  • ২২-১২-২০১৮
  • 374328_191ফেনী বিশেষ প্রতিনিধিঃ  ফেনী-১ (ছাগলনাইয়া-ফুলগাজী-পরশুরাম) আসনে মহাজোটের প্রার্থী জাসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার। নৌকা প্রতীকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন তিনি। এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আপেল প্রতীকে নির্বাচন করছেন ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও ঢাকাস্থ ফেনী সমিতির সভাপতি শেখ আবদুল্লাহ। অভিযোগ উঠেছে, মহাজোট প্রার্থী শিরীন আখতারের পক্ষে কাজ করছেন না এ আসনের তিন উপজেলার আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ আবদুল্লাহর পক্ষে আপেল প্রতিকের পক্ষে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা।

    অপরদিকে, আওয়ামী লীগের মধ্যে দ্বিধাবিভক্তক্তি থাকলেও শেখ হাসিনার নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী মাঠে থাকার কথা জানিয়েছেন জাসদ নেত্রী শিরীন আক্তার।

    আসন্ন নির্বাচনে দেশের ভিআইপি আসন হিসেবে পরিচিত ফেনী-১ আসনে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া এরশাদ সরকারের পতনের পর থেকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের হারিয়ে চার বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

    নির্বাচনের কয়েকদিন বাকি থাকলেও নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শিরীন আখতারের পক্ষে প্রচারের জন্য এখন পর্যন্ত কেন্দ্রীয়ভাবে কোনো কমিটি গঠন করা হয়নি। এজেন্টের বিষয়েও কারও সঙ্গে আলাপ করা হচ্ছে না। মহাজোট প্রার্থীর পক্ষে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ভোট চাইতেও দেখা যাচ্ছে না।

    গতকাল শুক্রবার সকালে ফেনী-১ আসন নিয়ে জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারকদের এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ফেনী সদরে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর সাবেক প্রটোকল অফিসার আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম, ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রহমান বি.কম, সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারীসহ ১৬টি ইউনিয়নের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ছাড়াও তিন উপজেলার চেয়ারম্যান এবং ১৫টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যানরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে বিশদ আলোচনার পর নেতাকর্মীরা বিগত সময়ে ফেনী-১ আসনের বর্তমান এমপি ও মহাজোট প্রার্থী শিরীন আখতারের সঙ্গে আওয়ামী লীগের দূরত্বের বিষয়টি তুলে ধরে নেতিবাচক মতামত দেন। এক পর্যায়ে মাঠ পর্যায়ের নেতাদের আপত্তির কারণে নীতিনির্ধারকরা স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ আবদুল্লাহর পক্ষে আপেল প্রতীকে কাজ করার সিদ্ধান্ত দেন।

    এ বিষয়ে জানতে চাইলে ফুলগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল আলীম গনমাধ্যমকে বলেন, আপেলের পক্ষে ভোট করার নীতিগত সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে।

    এই বিষয়ে জানতে চাইলে পশুরাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বাদলের কাছে জানতে চাইলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। ছাগলনাইয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেলও কোনো মন্তব্য করেননি।

    ছাগলনাইয়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র মো. মোস্তফা জানান, ফেনীতে বৈঠকে স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ আবদুল্লাহর আপেল মার্কার পক্ষে ভোট করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তিনি বলেন, বৈঠকে তিনিসহ স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান, শিরীন আখতার তিন হাজার ভোটও পাবেন না। কেউ তাকে মেনে নেয়নি। এ অবস্থায় নৌকার এ আসনটি হারানোর আশঙ্কায় শেখ আবদুল্লাহকে প্রার্থী হিসেবে মেনে নেয় স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠন।

    স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ আবদুল্লাহ বলেন, শিরীন আখতার এলাকায় জনবিচ্ছিন্ন। আওয়ামী লীগের কোনো স্তরের নেতাকর্মী তার সঙ্গে না থাকায় তিনি একা হয়ে গেছেন। শেখ আবদুল্লাহ আরও বলেন, সবাই তাকে সমর্থন দিয়েছেন। শিরীন আখতার খুব শীঘ্রই সংবাদ সম্মেলন করে তাকে সমর্থন দিয়ে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেবেন।

    শেখ আবদুল্লাহর এ বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে শিরীন আখতার বলেন, ডাহা মিথ্যা বলছেন শেখ আবদুল্লাহ। তিনি (শিরীন) আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থী। সরে যাওয়ার বা কাউকে সমর্থন দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। কেউ থাকুক, না থাকুক; তিনি নৌকা প্রতীকে ভোট করবেন।

    অপরদিকে, ফেনী-১ আসনে বার বার নির্বাচিত দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে না পারায় ধানের শীষের প্রার্থী হয়েছেন ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) সভাপতি রফিকুল আলম মজনু।

    এ দিকে রফিকুল আলম মজনু নেতাকর্মীদের নিয়ে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার পৈত্রিক বাড়ী ফুলগাজীর শ্রীপুরে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা শুরু করেন। প্রচার কর্মীদের মারধর, অফিস ভাংচুর, জোটের নেতাকর্মীদের আটক ও হয়রানির মধ্যে ব্যাপক গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। বিএনপি অধ্যুষিত এলাকা হিসেবে পরিচিত দীর্ঘদিন রাজপথে নামতে না পারলেও বর্তমানে বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মীরা ধানের শীষের পক্ষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। ধানের শীষের প্রার্থী মজনু বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নিয়ে দিন-রাত চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার প্রতিনিধি হিসেবে নিজেকে তুলে ধরে পথ সভা, উঠান বৈঠক, লিফলেট বিতরণ করে তার মুক্তির জন্য ধানের শীষের পক্ষে ভোট প্রার্থনা করতে দেখা গেছে ।

    বিএনপি প্রার্থী রফিকুল আলম মজনু সাংবাদিকদের জানিয়েছেন যেখানে গণসংযোগে যাচ্ছেন সেখানেই শত শত নেতাকর্মী ও ভোটারের ঢল নামছে । বিজয়ের ব্যপারে শতভাগ আশাবাদী।

    সংবাদ প্রতিদিন বিডি/ ই আ স

    (Visited 36 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *