Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / সংবাদ প্রতিদিন » স্পেশাল / কোন ভাবেই থামছে না মাদক ব্যবসা ।। songbadprotidinbd.com

কোন ভাবেই থামছে না মাদক ব্যবসা ।। songbadprotidinbd.com

  • ২০-০৯-২০১৮
  • image-43714-1537384769নিজস্ব প্রতিবেদক: চলতি মাসেই চার মাস পূর্ণ হলো মাদকবিরোধী অভিযান। এ অভিযানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে প্রাণ হারায় ২১২ জন মাদক ব্যবসায়ী। এই চার মাসের মধ্যে বিপুলসংখ্যক মাদকসেবী ও ব্যবসায়ীদের আটক করা হলেও থামছে না মাদক ব্যবসা।আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে মাদক সরবরাহ সাময়িকভাবে কমলেও নির্মূলে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার বিকল্প নেই বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

    সূত্রমতে, হিরোইন, প্যাথেড্রিন, ফেনসিডিল, ইয়াবা- প্রাণঘাতি এসব মাদকদ্রব্য কয়েক দশক ধরেই সীমান্ত এলাকা দিয়ে দেশের ভিতরে ঢুকছে। মিয়ানমার থেকে কোনভাবেই বন্ধ হচ্ছে না ইয়াবার স্রোত। তার উপর নতুন করে আকাশপথে আসছে পূর্ব আফ্রিকার মাদক ‘খাট’। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ইয়াবার চেয়েও এর প্রভাব ভয়ঙ্কর। চায়ের পাতার মতো দেখতে ওই পাতার নাম নিউ সাইকোট্রফিক সাবস্ট্যানসেস বা এনপিএস। এটি যেমন চিবিয়ে খাওয়া হয়, তেমনি চায়ের মতোও পান করা যায়।

    সম্প্রতি দেশে খাটের কয়েকটি বড় চালান আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) ও ঢাকা কাস্টমসের সদস্যরা। গত দুই সপ্তাহে বিভিন্ন ফ্লাইটে হয়রত শাহজালাল বিমানবন্দরে আসা প্রায় তিন হাজার কেজি এ মাদক উদ্ধার করা হয়েছে। সড়কপথের বিকল্প হিসেবে আকাশপথকে নিরাপদ মনে করছে মাদক ব্যবসায়ীরা। আকাশপথের পাশাপাশি বৈদেশিক ডাক বিভাগকেও ব্যবহার করছে চক্রটি। আর তাই ধরাছোঁয়ার বাইরেই থেকে যাচ্ছে মূল হোতারা।

    ধারণা করা হচ্ছে, আন্তর্জাতিক মাদক পাচারকারী চক্র ও দেশের গডফাদাররা নতুন এ মাদক আমদানি করছে। মাদক ও নেশা নিরোধ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অধ্যাপক ড. অরূপ রতন চৌধুরী বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, মাদক বিরোধী অভিযানে আটকের সংখ্যা অনেক। তবে গডফাদার আটকের সংখ্যা ৫ শতাংশও নেই। যার ফলে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মাদক আসছে নতুন পন্থায়। মূল হোতারা এখন নতুন মাদক আমাদানি করছে ভারত রুটে। তাই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীদেরও আরও তৎপর হতে হবে।

    র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছে সরকার। এর বিরুদ্ধে র‌্যাবসহ অন্যান্য সংস্থা কঠোর অভিযান চালাচ্ছে। যতদিন মাদক নির্মূল না হবে ততদিন এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। নতুন মাদক খাতের বিরুদ্ধেও র‌্যাব একই ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

    র‌্যাব সূত্রে জানা গেছে, গত চার মাসে (৪ মে-৬ সেপ্টেম্বর) মাদকবিরোধী বিশেষ অভিযানে সারা দেশে ২৮৫৭টি অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব। এ সময় ৪৯০৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। উদ্ধার করা হয় ৩৩ লাখ পিস ইয়াবা। মোবাইল কোর্টে ১০৭টি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ৮৫১৫ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেয়া হয়। এর

    মধ্যে ব্যবসায়ী ১২১৬ ও মাদকসেবী ৭২৯৯ জন। র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মারা যায় ৭০ জন।

    মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মতে, দেশে মাদকসেবীর সংখ্যা ৫০ লাখের মতো। তবে বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার হিসাবে এ সংখ্যা ৭০ লাখের বেশি। এদের ৮০ শতাংশই ইয়াবায় আসক্ত।

    (Visited 14 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *