Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / ধর্ম / কাকরাইল মসজিদে দিল্লির মাওলানা সা’দ, বাইরে কড়া নিরাপত্তা ।। songbadprotidinbd.com

কাকরাইল মসজিদে দিল্লির মাওলানা সা’দ, বাইরে কড়া নিরাপত্তা ।। songbadprotidinbd.com

  • ১০-০১-২০১৮
  • image-120346-1515589744সংবাদ প্রতিদিন বিডি প্রতিবেদকঃ  দিল্লির নিজামুদ্দিনে তাবলিগের প্রবীণ মাওলানা সা’দ কান্ধলভি রাজধানীর কাকরাইল মসজিদে অবস্থান করছেন। মসজিদের বাইরে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।
    আজ বুধবার বিকেল ৪টার দিকে কাকরাইল মসজিদে পৌছান মাওলানা সা’দ। এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টায় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌছান তিনি।

    সরেজমিনে দেখা যায়, রমনা থানা পুলিশসহ কাকরাইল মসজিদের মূল ফটকের বাইরে অবস্থান করছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) ও পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সদস্যরা। মসজিদ সংলগ্ন এলাকায়ও নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

    করাইল মসজিদের মূল ফটক দিয়ে সব মুসল্লি প্রবেশ করতে পারছেন না। শুধু ভেতরে অবস্থানরত মুসল্লিরা কাউকে পরিচিত মনে করলে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে। ফলে সাধারণ মুসল্লিদের অনেকেই মসজিদে যেতে পারেননি। অন্তত অর্ধশত মুসল্লি মসজিদের বাইরে অপেক্ষা করছেন।

    এদিকে মাওলানা সা’দ ঢাকায় আগমনের বিরোধিতা করে সকাল থেকেই বিমানবন্দর এলাকায় বিক্ষোভ করেছেন সা’দবিরোধী তাবলিগ ও কওমি আলেমরা। এ সময় মাওলানা সা’দকে যেন বাংলাদেশে আসতে দেওয়া না হয় সেজন্য তাদের স্লোগান দিতে দেখা যায়।

    বুধবার সকালে বিমানবন্দরের অদূরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বায়তুস সালাম জামে মসজিদ সংলগ্ন চত্বরেও বিক্ষোভ করেন আলেমরা।

    বিতর্কিত ও আপত্তিকর মন্তব্যের কারণে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের আলেমরা মাওলানা সাদ কান্ধলভীকে তাবলিগ জামাতের ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমায় না আসার আহ্বান জানায়। এর আগে ‘তবলিগ করা ছাড়া কেউ বেহেশতে যেতে পারবে না’ – মাওলানা সাদ এই বক্তব্য দেওয়ায় তার বিরুদ্ধে অবস্থান নেয় ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ মাদ্রাসা। সেখান থেকে মাওলানা সাদকে এ বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান জানানো হয়। কিন্তু তিনি উল্টো যুক্তি দেন। এ নিয়ে মাওলানা সাদের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

    এক পর্যায়ে সাদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেন দেওবন্দ মাদ্রাসার অনুসারী বাংলাদেশের আলেমরা। তারা তাকে টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমায় আসতে না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। তবলিগ জামাতের বাংলাদেশ শাখার ১১ শূরা সদস্যের মধ্যে ছয়জনই আলেমদের এ সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেন।

    (Visited 30 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *