Templates by BIGtheme NET
Home / সারাবাংলা / ময়মনসিংহ / পা দিয়ে লিখে সমাপনী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ।। songbadprotidinbd.com

পা দিয়ে লিখে সমাপনী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ।। songbadprotidinbd.com

  • ৩১-১২-২০১৭
  • download (7)কাজল আর্য, টাঙ্গাইল থেকেঃ  প্রবল ইচ্ছাশক্তি ও দৃঢ় মনোবলের কাছে সকল প্রতিকূলতাই হার মানে। ধরে থাকলে সাফল্য আসেই। তারই প্রমাণ দিলো টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার বীর পাকুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিবন্ধি ছাত্র আসিফ হোসেন। সে নাগবাড়ী হাছিনা চৌধুরি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে পা দিয়ে লিখে এবার প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। পেয়েছে জিপিএ ২.৭৫। আসিফের এই সাফল্যে অত্যন্ত খুশি তার অভিবাবক, বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং এলাকাবাসী।

    জানা যায় শারীরিক প্রতিবন্ধি আসিফ হোসেন উপজেলার বীরপাকুটিয়া গ্রামের দরিদ্র আরজু মিয়া ও আছিয়া বেগমের বড় সন্তান। ছোট বেলা থেকেই লেখাপড়ার প্রতি আসিফের অত্যন্ত আগ্রহ। উপজেলার হাছিনা চৌধুরি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে প্রতিবন্ধি আসিফ পা দিয়ে লিখে মনোযোগের সঙ্গে পরীক্ষা দেয়। অনেকের হাতের লেখার চেয়েও আসিফের পায়ের লেখা সুন্দর। পরীক্ষায় লিখতে কষ্ট হলেও ওর নেই অনাগ্রহ।

    বীরপাকুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল হক মিয়া বলেন, পা দিয়ে লিখেও আসিফ নিয়মিত ভাল রেজাল্ট করে আসছে। পঞ্চম শ্রেণীতে আসিফের রোলনং ছিল ৭। একজন প্রতিবন্ধী হয়েও আসিফের যে দৃঢ় মনোবল তা সত্যি অবাক করার মত। এবার সমাপনী পরীক্ষায় আসিফ ২.৭৫ পয়েন্ট পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে। এতে আমরা অত্যন্ত খুশি।

    আসিফের মা আছিয়া বেগম বলেন, শৈশব থেকে আসিফের দুটি হাত বিকলাঙ্গ। প্রতিবন্ধি হলেও তো আমার ছেলে। দারিদ্রতার মধ্যেও অনেক কষ্টে আসিফকে এ পর্যন্ত নিয়ে এসেছি । ওর পড়াশোনার প্রতি অনেক আগ্রহ। সহযোগিতা পেলে আসিফ অনেক বড় মানুষ হতে পারবে বলে আমার বিশ্বাস। প্রতিবন্ধি আসিফ হোসেন কথা অস্পষ্ট। তবুও সে বুঝিয়েছে লেখাপড়া করে একদিন বড় মানুষ হতে চায় ও।

    কালিহাতী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজহারুল ইসলাম তালুকদার বলেন আসিফ হোসেনের এই ফলাফলে আমরা খুব খুশি হয়েছি। প্রতিবন্ধিরা যে আমাদের সামজের বোঝা নয়, সম্পদ। এটা আসিফ আবারো প্রমাণ করলো। প্রতিবন্ধিদের যত্ন সহকারে গড়ে তুলতে হবে। আসিফের লেখাপড়ার জন্যে আমার ব্যক্তিগত ও উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে।

    পা দিয়ে লিখে পরীক্ষায় পাস বিষয়টি শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও এলাকার মানুষের মধ্যে ব্যাপক কৌতূহল সৃষ্টি হয়েছে। অনেকে আসিফকে একবার দেখার জন্য বাড়িতে ছুটে আসছেন।

    (Visited 18 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *