Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / কর্পোরেট নিউজ / জমকালো আয়োজনের মধ্যে দিয়ে “বাংলালিংক ইনোভেটর্স” প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ।। songbadprotidinbd.com

জমকালো আয়োজনের মধ্যে দিয়ে “বাংলালিংক ইনোভেটর্স” প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ।। songbadprotidinbd.com

  • ১৯-১২-২০১৭
  • Shaon-Photo-Inner20171218114704সংবাদ প্রতিদিন বিডি প্রতিবেদকঃ  দেশের অন্যতম ডিজিটাল সেবা দাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালিঙ্ক আয়োজিত প্রযুক্তি ভিত্তিক ব্যবসায়ীক পরিকল্পনার প্রতিযোগিতা “বাংলালিঙ্ক ইনভেটরস” এর গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত হয় সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর  রেডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন হোটেলের উৎসব হলে জমকালো আয়োজনের মধ্যে দিয়ে শেষ হলো বাংলালিংক ইনোভেটর্সের এবারের প্রতিযোগিতার আসর। এতে বিজয়ী হয় টিম কুইজার। হোটেল র‍্যাডিসন ব্লু-তে আয়োজিত এ গ্রান্ড ফিনালে প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় চারজন করে পাঁচটি দলে বিভক্ত মোট ২০ জন ইনোভেটর্স। দেশের প্রায় ৩৫টি সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আবেদন করা পাঁচ হাজার ৭০০ শিক্ষার্থীর মধ্যে থেকে চূড়ান্ত পর্যায়ে সুযোগ পায় এ ২০ শিক্ষার্থী। প্রতিযোগিতায় পাঁচটি দলে ভাগ হয়ে এসব তরুণ-তরুণীরা করপোরেট খাতে তাদের ডিজিটাল আইডিয়া তুলে ধরেন। 

    ২০১৭ সালের ১৫ই নভেম্বার ঢাকা জাতীয় প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত এক প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে শুরু হয়। প্রতিযোগিতায় প্রায় ছয় হাজার তরুন তরুণী রেজিস্ট্রেশন করে। প্রায় এক মাস ধরে চলা এ প্রতিযোগিতায় এবার চ্যাম্পিয়ান হয় টিম কুইজার। তাদের আইডিয়া ছিল এমন একটি মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে গৃহশিক্ষক এবং অভিভাবকেরা একে অপরকে খুঁজে পাবে। এ টিমের সদস্য ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ এর শিক্ষার্থী ওয়াহি এবং আরাফ, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আবির এবং বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস এর শিক্ষার্থী অমৃত। বিজয়ী টিমের সদস্যসহ ফাইনালে আসা ২০ জন শিক্ষার্থীই পাচ্ছেন বাংলালিংক এর সঙ্গে ইন্টার্ন করার সুযোগ। আর তিনটি দলের প্রতি সদস্য পাচ্ছেন প্রতিষ্ঠানটির এসেসমেন্ট সেন্টারে সরাসরি কাজের সুযোগ। এছাড়াও বিজয়ী দলের প্রতি সদস্য পাচ্ছেন একটি করে ম্যাক বুক এয়ার।

    অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম এমপি। তিনি বলেন বর্তমান সরকার এই খাতে বিপুল সাফল্য অর্জন করেছে। এরই মধ্যে দেশের জনগন তা বুজতে পেরেছে। আগামী বছর ২০১৮ কে আমরা যোগাযোগের বছর হিসেবে ঘোষণা করেছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়ের নির্দেশনায় আমরা তথ্য প্রযুক্তি ও টেলি যোগাযোগের ক্ষেত্রে এক বিশাল উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।

    তিনি বলেন দেশের নতুন প্রজন্মকে এগিয়ে নিয়ে যাবার লক্ষ্যে “বাংলালিঙ্ক ইনভেটরস” প্রতিযোগিতা আয়োজনের মাধ্যমে বাংলালিঙ্ক যে উদ্যোগ গ্রহন করেছে তা সত্যি প্রশংসনীয়। আমি নিশ্চিত আমাদের দেশের এই উদ্যমি তরুণরাই পারবে বাংলাদেশকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে। তারাই দিবে আগামীর নেতৃত্ব।  তিনি বলেন, “দেশে এখন প্রায় আট কোটি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। আমরা দেশের ২৯০টি উপজেলাকে অপটিক্যাল ফাইবারের আওতায় এনেছি। এর পরিমাণ প্রায় ৭০ হাজার কি.মি. আর এ ধারা অব্যাহত রাখতে এমন তরুণ ইনোভেটরটেরই দরকার।”

    এ সময় ইনোভেটরদের প্রশংসা করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “আমাদের উচিত এদেরকে পৃষ্ঠোপোষকতা করা। আমরা সবাই একসঙ্গে কাজ করলেই হবে ডিজিটাল বাংলাদেশ। হবে সোনার বাংলা যার স্বপ্ন বঙ্গবন্ধু দেখেছিলেন।” এই ধরনের আয়োজনের জন্য তিনি বাংলালিঙ্ক কে ধন্যবাদ জানান।

    পুরষ্কার হিসেবে বিজয়ী দলের প্রত্যেক সদস্য পান একটি করে ম্যাকবুক এয়ার, প্রথম রানার্স আপ দলের প্রত্যেক সদস্য পান একটি করে ল্যাপটপ এবং দ্বিতীয় রানার আপ দলের প্রত্যেক সদস্য পান একটি করে স্মার্ট ওয়াচ।

    বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলালিংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এরিক অস বলেন, এদেশে এত মেধা এবং মেধাবীদের দেখে আমার খুবই ভাল লাগছে। এদের সঙ্গে থাকতে পেরে আমি খুবই গর্বিত বোধ করছি। বাংলালিংক শুধু পণ্য বা সেবা বিক্রি করা প্রতিষ্ঠানই না বরং আমরা সবাইকে জানাতে চাই যে, আমরা তরুণদের সঙ্গে নিয়ে এমন কাজ করে যেতে চাই। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের টি২০ এবং টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

     

    সংবাদ প্রতিদিন বিডি/ ইকবাল আহমেদ 

    (Visited 18 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *