Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / সারাবাংলা / রাজশাহী / টাঙ্গাইলের বাসাইলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রেলপথ পারাপার ।। songbadprotidinbd.com

টাঙ্গাইলের বাসাইলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রেলপথ পারাপার ।। songbadprotidinbd.com

  • ১৭-১২-২০১৭
  • image-116470-1513503487বাসাইল(টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ দেশের প্রধানতম গুরুত্বপূর্ণ রেলপথ ঢাকা-উত্তরবঙ্গের টাঙ্গাইলের বাসাইল অংশে পাঁচটি লেভেল ক্রসিং দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ বিভিন্ন যানবাহনসহ ঝুঁঁকি নিয়ে চলাচল করছে। এ অবস্থায় যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার ঘটার আশঙ্কা রয়েছে। উপজেলার কাশিল ইউনিয়নের দাপনাজোর, হাবলা ইউনিয়নের সহেরাতুল, টেঙ্গুরিয়াপাড়া, সালিনাপাড়া ও সোনালিয়া দক্ষিণপাড়া এলাকায় রেলপথের ওপর দিয়ে যাওয়া সড়ক পথের লেভেল ক্রসিং-এ গেটম্যান না থাকায় এসব ক্রসিং দিয়ে প্রতিদিনই ঝুঁকি নিয়ে চলছে ট্রাক, মাইক্রোবাস, অটোরিকশাসহ বিভিন্ন শ্রেণীর যানবাহন। কোমলমতি শিক্ষার্থীরাও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এসব লেভেল ক্রসিং পারাপার হয়।

    সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, লেভেল ক্রসিং এ সতর্কতামূলক ‘এই লেভেল ক্রসিং গেটে গেটম্যান নাই, নিজ দায়িত্বে ও সাবধানে লেভেল ক্রসিং পারাপার হইবেন’ এ জাতীয় লেখা সাইনবোর্ড দেখা গেলেও অধিকাংশ লেভেল ক্রসিং এ কোন ধরনের নিরাপত্তা গেট বা এ জাতীয় কোন ও সাইনবোর্ডও নেই। এসব এলাকায় নিরাপত্তাজনিত কোন ধরনের বাতিও নেই। বিশেষ করে দাপনাজোর এলাকায় লেভেল ক্রসিং-এ বড় ধরনের বাঁক থাকায় ট্রেন আসছে কিনা কোন সংকেতও পাওয়া যায় না। ফলে প্রতিনিয়তই দুর্ঘটনা ঘটছে এখানে। শীত মৌসুমে কুয়াশার কারণে আরও বেশি সমস্যায় পড়তে হয় যাতায়াতকারীদের।

    সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালক বিকাশ সরকার বলেন, দাপনাজোরে লেভের ক্রসিং এ সিগন্যাল বার ও গেটম্যান নেই। বেশ কয়েকবার এখানে ট্রেনের সঙ্গে যানবাহনের ধাক্কা লেগেছে। এখানে রেলপথে বাঁক থাকায় ট্রেন আসছে কিনা তাও দেখা যায় না। ট্রেন না দেখেই যানবাহন পারাপার হতে গিয়ে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটছে।
    একাধিক শিক্ষার্থী জানান, দাপনাজোর এলাকায় লেভেল ক্রসিংএ গেটম্যান ও সিগন্যাল বারের প্রয়োজনীয়তা আমাদের ছাড়া কেউই উপলব্ধি করে না। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আমাদের লেভেল ক্রসিং পারাপার হতে হচ্ছে।

    বাসাইল-করটিয়ার সড়কের সোনালিয়া গেটম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন, বাসাইল অংশে দাপনাজোর এলাকায় লেভেল ক্রসিং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এখানে ইতোপূর্বেও কয়েকটি দুর্ঘটনা ঘটেছে। সম্প্রতি ট্রেনের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কা লেগে তিনজন আরোহী গুরুতর আহত হন। তিনি আরও বলেন, ২৪ ঘণ্টায় এ রেলপথ দিয়ে ২৫/২৬ বার ট্রেন যাতায়াত করে।
    এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল (ঘারিন্দা) রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার জালাল উদ্দিন বলেন, বাসাইলের লেভেল ক্রসিংগুলোতে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য গেটম্যান নিয়োগ জরুরি। বিষয়টি রেলপথ মন্ত্রণালয়ের প্রকৌশল বিভাগ দেখাশোনা করে। তারা এ ব্যাপারে অবহিতও আছে।

    (Visited 13 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *