Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / সারাবাংলা / ঢাকা / অবিরাম বর্ষণে চরম দুর্ভোগে রাজধানীবাসী ।। Songbad Protidin BD

অবিরাম বর্ষণে চরম দুর্ভোগে রাজধানীবাসী ।। Songbad Protidin BD

  • ২০-১০-২০১৭
  • image-52640সংবাদ প্রতিদিন বিডি প্রতিবেদকঃ  শুক্রবার বেলা ২টা। বৃষ্টির মধ্যে ছাতা নিয়ে রাস্তায় বের হয়েছেন দুই যুবক। এক পর্যায়ে মাইক্রোবাস থেকে নেমে আসা কয়েক ব্যক্তিকে নিয়ে যাচ্ছিলেন তারা। কিন্তু রাস্তায় হাটু সমান পানি! অবশেষ পানি মাড়িয়ে, বৃষ্টিতে ভিজেই তারা গন্তব্যে পৌঁছান। এ দৃশ্য দেখা যায় রাজধানীর পশ্চিত তেজতুরী বাজার এলাকায়।

    এক পর্যায়ে ওই দুই যুবকের সাথে কথা হয়। তুহিন ও মনির নামের ওই দুই যুবক জানান, আজ তাদের বাসায় কনেপক্ষ বর দেখতে এসেছেন। তাই বাসায় সব ধরনের প্রস্তুতিও নেয়া হয়েছে। কিন্তু বৃষ্টির কারণে কনেপক্ষ একটু দেরি করে এসেছে। এছাড়াও রাস্তা থেকে বাসা পর্যন্ত বাড়তি ছাতা দিয়ে অতিথিতের স্বাগত জানানো হয়েছে।

    তারা জানান, বৃষ্টি হওয়ায় তাদের বাসার সামনের রাস্তা জলবদ্ধ হয়ে যায়। তাই আজ তারা অনেক বিড়ম্বনার শিকার হয়েছেন। তবে ঢাকা শহরে এটা নতুন কিছু নয়। বৃষ্টি হলে রাজধানীর প্রায় এলাকায় জলবদ্ধতা দেখা দেয়। শুক্রবার দুপুর আড়াইটা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর ফার্মগেট, কারওয়ানবাজার, মগবাজার, বাংলামটর, তেজতুরী বাজার, পুর্ব নাখালপাড়া, তেজগাঁও এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বৃষ্টির পানিতে ওইসব এলাকায় জলবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। এতে স্থানীরা ভোগান্তি পোহাচ্ছেন।

    পশ্চিম তেজতুরী বাজার এলাকাস্থ বসুন্ধারা সিটির পেছনের একটি গলিতে গিয়ে দেখা গেছে, রাস্তায় হাটু পানি। রাস্তার পাশে অনেক দোকান ও বাসা-বাড়িতে পানি ঢুকে গেছে। তবে ওইসব এলাকার বাসিন্দাদের জন্য রিকশা চালকরা ১০টাকা করে পানি পার করছেন। স্থানীয়রা জানান, বৃষ্টি হলেই ওই রাস্তায় জলবদ্ধতা দেখা দেয়। এ সময় সুবিধাভোগী কিছু রিকশাচালাক সেখানে অবস্থান করে এবং পানি পারাপারের জন্য জনপ্রতি ১০ থেকে ২০টাকা নেয়।

    একই অবস্থা তেজগাঁও, রামপুরা, মালিবাগ, মিরপুরসহ বিভিন্ন এলাকায়ও। রামপুরার বাসিন্দা শামীম সুলতান জানান, বৃষ্টির কারণে তার বাসার আশপাশের রাস্তায় জলবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। তাই এই এলাকার লোকজন ভোগান্তিতে পড়েছেন। তিনি আরো জানান, আজ বিকালে ফার্মগেটে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু রামপুরা এলাকায় জলবদ্ধতা থাকায় তিনি বাসা থেকে বের হতে পারেননি।

    ফার্মগেট এলাকার বাসিন্দা ছগির মিয়া জানান, তাদের এলাকায়ও জলবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। রাস্তায় অনেক পানি থাকায় তিনি আজ জুমার নামাজেও মসজিদে যেতে পারেননি। মালিবাগ এলাকার বাসিন্দা আবুল হোসেন জানান, তাদের এলাকায়ও বৃষ্টির পানিতে জলবদ্ধতা হয়েছে। অনেক বাসায় বা দোকানে পানি উঠে গেছে। তাই এলাকাবাসী ভোগান্তির শিকার হচ্ছে।

    এদিকে, শুক্রবার বিকালে হাতিরঝিল এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, হাতিরঝিলের রাস্তায়ও পানি জমে গেছে। বিশেষ করে মগবাজার থেকে পুলিশ প্লাজা রাস্তার মহানগর ওভারব্রিজ এলাকায় জলবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়াও হাতিরঝিলের অনেক জায়গায় পানি জমে আছে। তাই আজ দর্শনাতিও ঘুরতে আসেনি।

    হাতিরঝিল এলাকার এক ঝাল-মুড়ি বিক্রেতা জানান, তিনি প্রতিদিন হাতিঝিল এলাকায় ঝল-মুড়ি বিক্রি করেন। তাই আজও ঝাল-মুড়ি নিয়ে সেখানে অবস্থান করেন। কিন্তু বৃষ্টি হওয়ায় লোকজন আসেনি।তাই তিনি আজ ঝাল-মুড়ি বিক্রিও করতে পারেননি। দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে তিনি বলেন, একটু অপেক্ষা করে বাসায় চলে যাব।

    প্রসঙ্গত, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের কারণে শুক্রবার সকাল থেকে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে অঝোর ধারায় বৃষ্টিপাত হচ্ছে। কোথাও হালকা আবার কোথায় ভারী বৃষ্টিপাত। পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টার আবহাওয়ার অবস্থায় সামান্য পরিবর্তন হতে পারে বলে আবহাওয়া সূত্রে জানা গেছে।

    এদিকে নিম্নচাপের কারণে সাগর উত্তাল থাকায় সমুদ্রবন্দরগুলোতে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত বহাল আছে। অভ্যন্তরীণ নদী বন্দরে স্থানভেদে ১ ও ২ নম্বর নৌ-হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

    আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, নিম্নচাপটি পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এটি আরও ঘণীভূত হতে পারে এবং উত্তর/উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে। সুত্র বিবা

    (Visited 9 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *