Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / সংবাদ প্রতিদিন » স্পেশাল / আপনার সন্তান ইন্টারনেট দিয়ে কোন দুনিয়ার, কার সঙ্গে মিশছে, খেয়াল রাখুন : পলক ।। Songbad Protidin BD

আপনার সন্তান ইন্টারনেট দিয়ে কোন দুনিয়ার, কার সঙ্গে মিশছে, খেয়াল রাখুন : পলক ।। Songbad Protidin BD

  • ২০-১০-২০১৭
  • receivedসংবাদ প্রতিদিন বিডি প্রতিবেদকঃ  অভিভাবক ও শিক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেছেন, আপনার সন্তান-ছাত্র বাসায়-শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কী করছে কম্পিউটার-স্মার্ট ফোন-ট্যাবে, সেদিকে খেয়াল রাখা জরুরি। আমরা যেমন বাল্য বয়সে বাবা-মায়ের কথা মতন সন্ধ্যার মধ্যে ঘরে ফিরতাম। এখনও না হয় আপনার সন্তানকে ঘরে ফিরাতে পারলেন সন্ধ্যার মধ্যে, কিন্তু ঘরে ঢুকে কম্পিউটার-স্মার্ট ফোন-ট্যাবে ইন্টারনেটের মাধ্যমে কোন দুনিয়ায়, কার সঙ্গে মিশছে- যা যদি খেয়াল না করেন, তাহলে ভবিষ্যতে ভয়াবহ দুর্যোগ নেমে আসার আশঙ্কা থাকবে।
    সোমবার রাতে ঢাকার কারওয়ান বাজারস্থ জনতা টাওয়ারে ইজি টেকনোলজি লিমিটেড এর কার্যালয়ে একটি আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী এসব তথ্য জানিয়েছেন।
    ইজি টেকনোলজির আয়োজনে এ আলোচনা সঞ্চালনা করেন- হাইটেক পার্ক অথোরিটির কনসালটেন্ট মুনির হাসান। এতে জুনায়েদ আহমেদ পলক ছাড়াও নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন- বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ ও মায়া ডটকম ডট বিডি এর প্রতিষ্ঠাতা আইভ হক রাসেল।
    ২০২০ সালের মধ্যে দেশে এক হাজার সাইবার সিকিউরিটি এক্সপার্ট তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে সরকার- এমন তথ্য জানিয়ে পলক আরও জানিয়েছেন সাইবার সিকিউরিটি নিশ্চিতে কলসেন্টার, সাইবার সিকিউরিটি স্কুলসহ সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিতে নানা সরকারি উদ্যোগের কথা।
    মুনির হাসানের একটি প্রশ্নে তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ইন্টারনেট ব্যবহার বন্ধ করা সম্ভব নয়। তবে ইন্টারনেট ব্যবহারকে নিরাপদ করে এ থেকে পজিটিভ কিছু বের করা সম্ভব এবং এজন্যই আমাদের কাজ করা জরুরি।
    বহুল আলোচিত ব্লু হোয়েল গেমসের কথা উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ব্লু হোয়েল নিয়ে অনেক গুজব চলছে দেশে। এমনকি বিটিআরসির বরাত দিয়ে মানুষের কাছে অপপ্রচারও চালানো হয়েছে যে, সবার অ্যান্ড্রোয়েড ফোনে নাকি ব্লু হোয়েল গেমস ঢুকিয়ে যার যার ব্যক্তিগত তথ্য হ্যাক করা হবে। যারা গুজব ছড়াচ্ছেন, তাদের সনাক্ত করে আটকাতে হবে। ভবিষ্যতে তারা আরও বড় ধরণের গুজব ছড়িয়ে আমাদের অযথা ভীত-সন্ত্রস্ত করে তুলতে পারে।
    ব্লু হোয়েল সম্পর্কে বিটিআরসির চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ বলেন, ব্লু হোয়েল নিয়ে দেশে যা চলছে, সবই গুজব। গেমটি রাশিয়ার ভাষায় তৈরি। এই গেম খেলে যারা আত্মহত্যা করেছেন, তারাও বেশিরভাগ রাশিয়ার। এটা আমি রাশিয়া সফরে জানতে পেরেছি। সেখানেই শুনেছি- ব্লু হোয়েলের বিপরীতে বের করা হয়েছে ইয়েলো হোয়েল। ব্লু হোয়েলে আসক্তদের ফিরিয়ে আনতে সহযোগিতা করবে ইয়েলো হোয়েল গেমটি। এটিও মনোরোগ বিশেষজ্ঞদের উদ্ভাবন। সচেতনতার সঙ্গে ইন্টারনেট ব্যবহারের পরামর্শ দেন তিনি।
    এসময় পলক বলেন, ব্লু হোয়েল গেমটি খারাপের দিকে ধাবিত করে, ইয়েলো হোয়েল ভালোর দিকে। ভালোর দিকে চালানো ও খারাপের দিকে চালানোর লড়াই পৃথিবী সৃষ্টির শুরু থেকে এখনও আছে, পৃথিবী ধ্বংসের আগ পর্যন্ত থাকবে। এর মধ্যেই আমাদের বাঁচতে হবে। ভালো দিয়ে খারাপকে হঠিয়ে দিতে হবে।
    স্মাটফোন ভিত্তিক অ্যাপ্লিকেশনের প্রসঙ্গে পলক বলেন, যে কোনো অ্যাপ যখন কেউ ইনস্টল করেন, তখন ভাল করে সেই অ্যাপের নির্দেশনা পড়া উচিৎ। যদি খারাপ কিছু থাকে, তবে তা অবশ্যই পরিহার করা উচিৎ। অ্যাপ থাকলেই যে হুটহাট নামিয়ে ব্যবহার শুরু করতে হবে, এমন মানসিকতা পরিহার জরুরি।
    তিনি বলেন, আগামী দিকে যারা ডিজিটাল বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেবে, তাদের সাইবার জগৎ সম্পর্কে সুশিক্ষিত-প্রশিক্ষিত করতে সরকার বহু ধরণের কাজ করছে। তাদেরকে জানানো হবে, শেখানো হবে- কীভাবে নিরাপদে ইন্টারনেট ব্যবহার করা সম্ভব, ইন্টারনেট দিয়ে ভাল কাজ করা যায়।
    ২০১৮ সালের মধ্যে দেশের সব গ্রামে ফাইবার অপটিক যোগে ইন্টারনেট সংযোগ প্রদান করা হবে জানিয়ে পলক বলেন, এর আগেই দেশের মানুষকে ইন্টারনেট সম্পর্কে সচেতন করার কাজ শুরু করেছে সরকার। ইন্টারনেট ব্যবহার করতে গিয়ে কেউ আরেকজন দ্বারা যদি কোনো সমস্যায় আক্রান্ত হন, তবে অবশ্যই আপনার বিশ্বস্ত, পরিবার-পরিজন কারও সঙ্গে আলোচনা করে সমাধানের পথ বের করুন। নিজের মধ্যে চেপে রাখবেন না সমস্যা। বিটিআরসিকে জানান।
    ব্লু হোয়েল গেমস সম্পর্কে তিনি আরও বলেন, একজন নির্দেশনা দিলো- হাত কেটে রক্তাক্ত করে ব্লু হোয়েল আঁকতে, আর আমি এঁকে ফেলব? এটা কীভাবে হয়? আসলে আমাদের প্রজন্মকে সুস্থ্য মানসিকতার অধিকারী নিয়ে বড় করতে হবে। নতুন প্রজন্মকে তাদের স্বাভাবিক জীবন উপভোগের সুযোগ দিতে হবে, সবুজ খেলার মাঠ, পারিবারিক শিক্ষা, ধর্মীয় অনুশাসন- সবকিছু নিশ্চিত করা জরুরি। নাহলে প্রজন্মের প্রতিভা প্রকাশ পাবে না, কুপথে পা যাবে তাদের।
    আইভি হক রাসেল জানান, তাদের কাছে প্রতি মাসে কমপক্ষে ৫০টি অভিযোগ যায়, সাইবার ক্রাইমের। এছাড়া ২৫% আসেন মানসিক সমস্যা নিয়ে।
    অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচারের ব্যবস্থা করে ঢাকা লাইভ ডট টিভি। এছাড়া প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলকের ফেসবুক পেইজ, সরকারের তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের ফেসবুক পেইজে, ফেসবুক পেজ ডিজিটাল বাংলাদেশ, বিটিআরসির ফেসবুক পেজসহ আরও কয়েকটি ফেসবুক পেইজে অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করা হয়েছে।
    (Visited 9 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *