Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / রাজনীতি / জিয়া পরিবার নিয়ে প্রধানমন্ত্রী মিথ্যাচার করছেন : মির্জা ফখরুল – Songbad Protidin BD

জিয়া পরিবার নিয়ে প্রধানমন্ত্রী মিথ্যাচার করছেন : মির্জা ফখরুল – Songbad Protidin BD

  • ১৪-০৯-২০১৭
  • image-49641সংবাদ প্রতিদিন বিডি প্রতিবেদক: জিয়া পরিবারের সম্পদ নিয়ে সংসদে প্রধানমন্ত্রী মিথ্যাচার করছেন বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য ভিত্তিহীন ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত। রোহিঙ্গা সমস্যার ব্যর্থতা আড়াল করতেই এ মিথ্যাচার।

    বৃহস্পতিবার দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় নয়াপল্টনে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব এ অভিযোগ করেন তিনি।

    তিনি বলেন, এই সরকার মেগা প্রোজেক্টের নামে সরকার বিলিয়ন ডলার লোপাট করছে। লুট করছে জনগণের সম্পদ। এখন জিয়া পরিবারের সম্পদ নিয়ে মিথ্যাচার করছে। গণতন্ত্রের আপোষহীন নেত্রীর বিরুদ্ধে এই মিথ্যাচারের জবাব জনগণ দেবে।

    তিনি আরো বলেন, বিএনপির সিনিয়র নেতৃবৃন্দের নামে বিদেশে যে কল্পিত সম্পদের কথা বলা হয়েছে তা হাস্যকর। আমরা চ্যালেঞ্জ করে বলতে চাই এই ধরণের কল্পকাহিনীর কোনো প্রমাণ তারা ১০ বছর তন্ন তন্ন করে খুঁজেও বের করতে পারেনি, এখনো পারবেন না।

    মির্জা ফখরুল বলেন, এই মিথ্যাচার শুধুমাত্র দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং বিএনপির নেতৃবৃন্দের ভাবমূর্তি বিনষ্ট করবার হীন উদ্দেশ্যে করা হচ্ছে। সুশাসন প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক গতি সঞ্চার করতে, বন্যা পরবর্তী সংকট মোকাবেলা করতে, বেহাল সড়ক সচল করতে, রাখাইনে গণহত্যা ও রোহিঙ্গাদের বিতাড়ণে নিন্দা জানাতে ব্যর্থতা, চালের দাম কমাতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ এই সরকার তাদের ব্যর্থতা ঢাকতেই এই মিথ্যাচার করছে। আমরা এই মিথ্যাচারের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি এবং এই ধরণের মিথ্যাচার থেকে বিরত থাকার এবং ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

    তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ২২ ট্রাক ত্রাণ নিয়ে বিএনপি জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক মন্ত্রী মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে গত ১৩ সেপ্টেম্বর তারিখে কক্সবাজার থেকে উখিয়া রওয়ানা দিলে পুলিশ বাধা দেয়। নেতৃবৃন্দকে বিএনপি অফিসে অবরুদ্ধ করে রাখে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আওয়ামী লীগের নামে সরকারি অর্থে ত্রাণ বিতরণ করেন।

    (Visited 32 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *