Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / রাজনীতি / আবারো ক্ষমতা দখলের ষড়যন্ত্র করছে আ.লীগঃ রিজভী – Songbad Protidin BD

আবারো ক্ষমতা দখলের ষড়যন্ত্র করছে আ.লীগঃ রিজভী – Songbad Protidin BD

  • ২৬-০৭-২০১৭
  • Rizvi_ahmed_jamunanews244সংবাদ প্রতিদিন বিডি প্রতিবেদকঃ  ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার আবারো ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতা দখলের চক্রান্ত করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

    বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

    রুহুল কবির রিজভী বলেন, সরকারের এজেন্সিগুলো বিএনপির সিনিয়র নেতাদের উদ্ধৃত করে নানা অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। এবার সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও অবিশ্বাস্য কল্পকাহিনী প্রচার করা হচ্ছে। মূলত খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য লন্ডন যাবার পর সরকারের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। তাদের জনপ্রিয়তা শূন্যে নেমে আসায় এখন দেশবাসী ও বিএনপির সাধারণ নেতাকর্মীদের মধ্যে নেতিবাচক ধারণা সৃষ্টির জন্য সরকারি এজেন্সিগুলোকে মাঠে নামিয়ে দেয়া হয়েছে।

    তিনি বলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সিনিয়র নেতাদের নামে বানোয়াট ও ভিত্তিহীন বিবৃতি একটি ওয়েবসাইটে প্রচার করা হয়েছে। দুই দিন আগেও তারেক রহমানকে উদ্দেশ করে ভাইস-চেয়ারম্যান এম মুর্শেদ খানের নাম ব্যবহারের মাধ্যমে বানোয়াট, অসত্য, মনগড়া বক্তব্য একটি ওয়েবসাইটে প্রচার করা হয়েছে। যার সঙ্গে মুর্শেদ খানের কোনো সম্পর্কই নেই। তারা বিএনপি নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা করছে। ১/১১ এর সরকারও কতো অপচেষ্টা করেছিল। কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। আপনারাও পারবেন না।

    রিজভী বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার লন্ডন সফর নিয়ে প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা কতই না প্রলাপ বকছেন। তিনি চিকিৎসার জন্য লন্ডন গেছেন। অথচ প্রথমে আওয়ামী লীগের নেতারা বললেন- খালেদা জিয়া মামলার ভয়ে দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন, এখন বলছেন-বেগম জিয়া ষড়যন্ত্র করতেই লন্ডন গেছেন। এরপর হয় তো তারা নতুন কিছু বলবেন।

    তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে খুশি করতেই লন্ডনে দেশনেত্রীর চিকিৎসা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর ষড়যন্ত্রে মেতেছেন আওয়ামী লীগ নেতারা। দেশে তাদের সৃষ্ট দারিদ্র্য, অবিচার, নিষ্ঠুর নিপীড়ন আর গুম, খুন ও লাশ ফেলার রাজনীতি ঢেকে ফেলার জন্যই তারা এসব করছেন।

    আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, এরাই প্রথম বহুদলীয় গণতন্ত্রকে নির্মমভাবে দড়িতে লটকিয়ে ১ নম্বর বাকশাল কায়েম করে বাক-ব্যক্তি ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতাসহ নাগরিক স্বাধীনতাকে সমাধিস্থ করে। এরা এরশাদের অধীনে নির্বাচনে না যাবার অঙ্গীকার করে এরশাদের সঙ্গে মিলে চক্রান্তের মাধ্যমে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সেই নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়ে জনগণের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে। এরা তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠার জন্য রক্তক্ষয়ী তাণ্ডব চালিয়ে আবারো চক্রান্তের মাধ্যমে সেটিকে বাতিল করে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা নিরঙ্কুশ করে জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করেছে।

    বিএনপির এই শীর্ষনেতা বলেন, সংবিধান ও গণতন্ত্রকে পাথরচাপা দিতে যারা ভূমিকা রেখেছিল সেই মঈনউদ্দিন-ফখরুদ্দিনের সরকারকে তাদের আন্দোলনের ফসল হিসেবে উল্লেখ করে তাদের সঙ্গে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসে ২ নম্বর বাকশাল কায়েম করে। ৭১ ও এর পরবর্তী সময়ে রাজনৈতিক ঘটনাপ্রবাহে পলায়ন ও আত্মসমর্পণের ইতিহাস শুধুই আওয়ামী লীগের।

    রিজভী আরো বলেন, আমি আওয়ামী নেতাদের উদ্দেশে বলতে চাই, বিএনপি নয়, ষড়যন্ত্র করছেন আপনারা। তার ওপর আপনাদের সঙ্গে আছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। সুতরাং ষড়যন্ত্রের ব্যাপকতা কতো ভয়াবহ হতে পারে তা দেশবাসী প্রত্যক্ষ করছে। আর সেই কারণে সরকারের বিভিন্ন এজেন্সিগুলোকে মাঠে নামিয়ে মিথ্যা কল্পকাহিনী রচনা করে বিএনপির সিনিয়র নেতাদের নামে বদনাম ও কুৎসা রটানোর অপচেষ্টা করছে।

    এসবের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে, ৫ জানুয়ারির মতো একতরফা নির্বাচন করা। তাতে কোনো লাভ হবে না। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই আগামী সাধারণ নির্বাচন হবে।

    (Visited 12 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *