Templates by BIGtheme NET
Home / বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি / বাংলাদেশ সীমান্তের সুন্দরবনে স্মার্ট সেন্সর প্রযুক্তি বসাচ্ছে ভারত – Songbad Protidin BD

বাংলাদেশ সীমান্তের সুন্দরবনে স্মার্ট সেন্সর প্রযুক্তি বসাচ্ছে ভারত – Songbad Protidin BD

  • ১৩-০৬-২০১৭
  • Borderসংবাদ প্রতিদিন বিডি ডেস্কঃ  বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী সুন্দরবন রিভারাইন অরক্ষিত সীমান্ত দিয়ে ভারতে অনুপ্রবেশ ও পাচার ঠেকাতে এবার ইনফ্রা-রে পিলার এবং স্মার্ট সেন্সর প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে সীমান্তপারে ক্রমবর্ধমান সমস্যা নিরসনে ইনফ্রা-রে পিলার এবং স্মার্ট সেন্সর’এর মতো প্রযুক্তিগত ব্যবস্থার সহায়তা নেওয়া হচ্ছে।

    সূত্রে খবর ইতিমধ্যেই কিছু জায়গায় এই ডিভাইসগুলি বসানো হয়েছে। বর্ষা মৌসুম শেষ হয়ে যাওয়ার পরই আগামী তিন মাসের মধ্যে ওই যন্ত্রগুলি তাদের কার্যক্রম শুরু করে দেবে বলে জানিয়েছে বিএসএফ’এর দক্ষিণবঙ্গ শাখা।

    বিএসএফ’এর পক্ষ থেকে এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, ‘প্রাথমিকভাবে সীমান্ত বরাবর তিন থেকে চার কিলোমিটার পর্যন্ত এই প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে। আমরা বর্ষা মৌসুম শেষ হওয়ার জন্য অপেক্ষা করছি। এর পরেই আগামী তিন মাসের মধ্যে এই প্রকল্প শুরু হয়ে যাবে। এরপর ডিসেম্বর পর্যন্ত ওই ডিভাইসগুলি পর্যবেক্ষণ করা হবে। সবকিছু ঠিকঠাক চললে ২০১৮ সালের জানুয়ারির মধ্যেই এই নতুন প্রযুক্তি স্থায়ীভাবে ব্যবহার করা হবে’।

    বিএসএফ সূত্রে খবর, প্রতি কিলোমিটার পর্যন্ত এই ইনফ্রা-রে পিলার স্থাপনের জন্য খরচ হবে আনুমানিক ২৫-৩০ লাখ রুপি।

    বিএসএফ’এর অন্য এক কর্মকর্তা জানান, ‘অর্থের যোগানটা আমাদের কাছে চিন্তার বিষয় তবু তিন-চার কিলোমিটার থেকে বাড়িয়ে পুরো অরক্ষিত সীমান্তটাই-যেখানে সঠিকভাবে আমাদের কাঁটাতারের বেড়া নেই সেখানে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করার কথা ভাবা হচ্ছে’।

    ৪০৯৬ কিলোমিটার বিস্তৃত ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের মধ্যে ২২১৬ কিলোমিটারের বেশি সীমান্ত রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে। এর মধ্যে সুন্দরবনে রয়েছে ৩০০ কিলোমিটার রিভারাইন বর্ডার। সুন্দরবনের ঘন ম্যানগ্রোভ জঙ্গল এবং বঙ্গোপসাগরের মতো জলসীমার মধ্যেও বিএসএফ’কে টহল দিতে হয়।

    বিএসএফ কর্মকর্তা জানান, ‘একটি উপগ্রহ-ভিত্তিক সাংকেতিক নির্দেশ প্রক্রিয়ার সাহায্যে ইনফ্রা-রে পিলারস এবং স্মার্ট সেন্সর-কে মনিটর করা হবে। যেসব অঞ্চলে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে, যা রাতে ও ঘন কুয়াশার মধ্যেও সক্রিয় থাকবে। এবং সেন্সরের শব্দের মাধ্যমেই সীমান্ত টহলরত জওয়ানদের সতর্ক করা হবে।

    বিএসএফ সূত্রে খবর, ভারত-বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক সীমান্ত বরাবর অরক্ষিত এলাকা দিয়ে জঙ্গিরা এবং রাষ্ট্রবিরোধী শক্তিগুলি ভারতে প্রবেশের চেষ্টা করছে-গোয়েন্দাদের কাছ থেকে এই সতর্কবার্তা পাওয়ার পরই আন্তর্জাতিক সীমান্তে নিরাপত্তা জোরদার করতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ইনফ্রা-রে এবং স্মার্ট সেন্সর স্থাপন করাটা তারই একটা অংশ।

     

    (Visited 11 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *