Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / সারাবাংলা / চট্টগ্রাম / মিতু-আকরাম হত্যা দুটোই পরকীয়ার কারণে – Songbad Protidin BD

মিতু-আকরাম হত্যা দুটোই পরকীয়ার কারণে – Songbad Protidin BD

  • ১৫-০৩-২০১৭
  • image-25049চট্টগ্রাম ব্যুরো: সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যা ও পুলিশের এসআই আকরাম হত্যা দুটোই পরকীয়ার কারণে হয়েছে বলে দাবি করেছেন নিহত আকরামের বোন মোছাম্মৎ জান্নাত আরা পারভীন রিনি।

    বুধবার দুপুরে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা কার্যালয়ে মিতু হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামানের কাছে এমন অভিযোগ করেন তারা।

    এসআই আকরামের স্ত্রী বনানী বিনতে বশির বন্নির সাথে পরকিয়ার জের ধরেই বাবুল আক্তারের যোগসাজসে এসআই আকরামকে হত্যা করা হয় বলে অভিযোগ করেছেন আকরামের বোন রিনি।

    বুধবার সকালে সিএমপির গোয়েন্দা অফিসে আসেন নিহত এসআই আকরামের বোন রিনি ও ভাগ্নি ডলি। তারা এসে কামরুজ্জামানের সাথে দেখা করে বাইরে চলে যান। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পুনরায় ডিবি কার্যালয়ে আসেন তারা। এক ঘণ্টা ধরে তদন্ত কর্মকর্তার সাথে কথা বলার পর তারা দুজন সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন।

    রিনি সাংবাদিকদের বলেন, আকরাম হত্যার পর বাবুল আক্তারের প্রভাবের কারণে তারা মামলা করতে পারেননি। ঘটনাটি তারা তখন সড়ক দুর্ঘটনা হিসেবে চালিয়ে দিয়েছিল। আদালতের মামলাও বাবুল আক্তারের প্রভাবের কারণে তার নাম দেয়া সম্ভব হয়নি। দেশের বাইরে থেকেই তিনি আকরাম হত্যার সাথে জড়িত ছিলেন। এছাড়া আকরাম নিহত হওয়ার পর বন্নি বাবুলের মাগুরার বাড়িতে রয়েছেন ২ বছর থেকে।

    রিনি বলেন, আমরা আকরাম হত্যার বিচার চাইতে এসেছি। বন্নি ও বাবুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে আসল রহস্য বেরিয়ে আসবে। আকরামকে হত্যার পর বন্নিকে হত্যার মধ্য দিয়েই বন্নির পথ পরিষ্কার করেছে বলে দাবি করেন আকরামের ভাগ্নি ডলি। ডলি বলেন আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত দাবি করছি।

    এদিকে মিতু হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসি কামরুজ্জামান বলেছেন আকরামের বোন কোনো লিখিত অভিযোগ দেননি। কিছু তথ্য দিয়েছেন। তবে তদন্তের স্বার্থে সেগুলো প্রকাশ করা যাচ্ছে না। প্রয়োজনের তাগিদে বন্নিকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে বলে জানান তিনি।

    সংবাদ প্রতিদিন বিডি/ এস আলম শাহিন 

    (Visited 33 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *