Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / ব্রেকিং নিউজ / থানকুনি পাতার ওষুধি গুণ – songbadprotidinbd.com

থানকুনি পাতার ওষুধি গুণ – songbadprotidinbd.com

  • ০৭-০১-২০১৭
  • image-14404সংবাদ প্রতিদিন বিডি ডেস্ক: থানকুনি বর্ষজীবী উদ্ভিদ। আমাদের দেশে অতিপরিচিত পাতা। কোনো প্রকার যত্ন ছাড়াই জন্মে। মাটির ওপর লতার মতো বেয়ে ওঠে। পাতা গোলাকার ও খাঁজকাটা। সাধারণত স্যাঁতস্যাঁতে পরিবেশেই থানকুনি গাছ বেশি জন্মে। তাই পুকুরপাড় বা জলাশয়ের পাশে থানকুনির দেখা মেলে বেশি।

    এই থানকুনিকে আমাদের দেশের খুবই প্রয়োজনীয় ও গুণসম্পন্ন উদ্ভিদ বললে ভুল হবে না। কেননা, চিকিৎসা অঙ্গনে থানকুনি পাতার অবদান অপরিসীম। প্রক্রিয়াজাতকরণের মাধ্যমে বহু রোগের উপশম হয় এর ভেষজ গুণ থেকে।

    অঞ্চলভেদে এই থানকুনি পাতাকে টেয়া, মানকি, তিতুরা, থানকুনি, আদামনি, ঢোলামানি, থুলকুড়ি, মানামানি, ধূলাবেগুন, আদাগুনগুনি নামে ডাকা হয়। ছোট্ট এই গাছটির রয়েছে অনেক ভেষজ গুণ। যা আজকের প্রতিবেদনে তুলে ধরা হলো-

    > আধা কেজি দুধে ১ পোয়া মিশ্রি ও আধা পোয়া থানকুনি পাতার রস একত্রে মিশিয়ে প্রতিদিন সকালে ১ সপ্তাহ খেলে গ্যাস্ট্রিক ভাল হয়।

    > বেগুন/পেঁপের সাথে থানকুনি পাতা মিশিয়ে শুকতা রান্না করে প্রতিদিন ১ মাস খেলে হজম শক্তি বৃদ্ধি পায়।

    > প্রতিদিন সকালে খালিপেটে ৪ চা চামচ থানকুনি পাতার রস ও ১ চা চামচ মধু/ মিশিয়ে ৭ দিন খেলে রক্ত দূষণ ভাল হয়।

    > নিয়মিত থানকুনি পাতার রস খেলে ত্বকের সতেজতা বাড়ে।

    > প্রতিদিন সকালে থানকুনির রস ১ চামচ, ৫/৬ ফোঁটা হলুদের রস (বাচ্চাদের লিভারের সমস্যায়) সামান্য চিনি ও মধুসহ ১ মাস খেলে লিভারের সমস্যা ভাল হয়।

    > জ্বর ও আমাশয়ে রস খেলে উপকার হয়।

    > মুখে ঘা হলে থানকুনি পাতা সিদ্ধ পানি দিয়ে কুলি করলে ঘা কমে যায়।

    > চুল ঝরা কমাতে পুষ্টিকর ভিটামিনসমৃদ্ধ খাবারের পাশাপাশি ৫-৬ চামচ থানকুনি পাতার রস দুধের সঙ্গে মিশিয়ে খেলে চুলপড়া কমবে।

    > বাচ্চাদের কথা পরিষ্কার না হলে এক চামচ থানকুনি পাতার রস গরম করে প্রতিদিন খাওয়ালে কথা স্পষ্ট হবে।

    > ঠাণ্ডা লাগলে ২০-২৫ ফোঁটা থানকুনির রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে খেলে উপকার পাবেন।

    অল্প পরিমাণ আমগাছের ছাল, আনারসের কচি পাতা ১টি, কাঁচা হলুদের রস, ৪/৫ টি থানকুনি গাছ শিকড়সহ ভাল করে ধুয়ে একত্রে বেটে রস করে খালি পেটে খেলে পেটের পীড়া ভাল হয়। ছোট বাচ্চাদের ক্ষেত্রে এটা আরো বেশি কার্যকর।

    সংবাদ প্রতিদিন বিডি/ ডেস্ক 

    (Visited 25 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *