Templates by BIGtheme NET
Home / লাইফস্টাইল / সমাজ জীবনে স্মার্ট ফোনের খারাপ প্রভাব পড়ছে

সমাজ জীবনে স্মার্ট ফোনের খারাপ প্রভাব পড়ছে

  • ০৬-০৯-২০১৬
  • 1472669139অনেকেই মনে করেন, বন্ধু পরিবারের সঙ্গে দেখা নেই, তাই ফোনে যোগাযোগ রাখলে সম্পর্ক বাঁচবে। ফেসবুকে, হোয়াটস অ্যাপে তাই সারাদিন কথা চলছে, বন্ধ পরিবারের সঙ্গে। কিন্তু গবেষণা বলছে, এর ফলে সামাজিক ভাবে একা হয়ে পড়ছে এই প্রজন্ম।

    ফোনে কথা হচ্ছে ঠিকই, কিন্তু একাকীত্ব কমছে না। কেন্ট স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা প্রায় ৪০০ ছাত্রছাত্রীর উপর পরীক্ষা করে দেখেছে, যে একদিনে মেয়েরা ফোন  ছেলেদের থেকে বেশি ব্যবহার করে। গড়ে দিনে প্রায় ৩৬৫ টি টেক্স ম্যাসেজ ও ১৬ বার ফোনে কথা বলে মেয়েরা। অন্যদিকে, ছেলেরা দিনে ২৮৫ টি টেক্স ম্যাসেজ করে, আর কমেবেশী ১০ টি ফোন কলে কথা বলে।

    কিন্তু ফোনের আলাপে মেয়েরা যতটা মানসিক ভাবে জড়িয়ে পড়ে, ছেলেরা তার থেকে অনেটাই কম। কিছুটা দায় সারতেই অনেকের সঙ্গে কথা চালায় তাঁরা। তাঁর সঙ্গে জুড়েছে অসময়ে ফোন ব্যবহার করার বদ অভ্যাস।

    ঘুমের সময়ে, গাড়ি চালাতে চালাতে, বা পড়া বা কাজের সময়ে যদি অতিরিক্ত ফোন ব্যবহার করা হয় তাহলেও মনঃসংযোগে বিপুল ব্যঘাত ঘটে। যা স্বাভাবিক জীবনে প্রভাব ফেলতে পারে। তাই যাঁরা ভাবছেন সময়ের অভাবে আড্ডায় যেতে না পারলে সামাজিক জীবনটা সোসাল সাইটেই বাঁচিয়ে রাখবে, তাঁরা কিন্তু ভিতরে ভিতরে একা হয়ে পড়ছেন।

     

    সংবাদ প্রতিদিন বিডি/ ডেস্ক

    (Visited 21 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *