Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / খেলাধুলা / বকেয়ার দাবিতে বিসিবির দারস্থ নাফীসরা

বকেয়ার দাবিতে বিসিবির দারস্থ নাফীসরা

  • ০২-০৮-২০১৬
  • 201fffগত ২২ জুন শেষ হয়েছে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ (ডিপিএল)। কিন্তু লিগের বকেয়া টাকা এখনো ঠিকমতো বুঝে পাননি ব্রাদার্স ইউনিয়নের ক্রিকেটাররা। বকেয়া টাকার দাবিতে মঙ্গলবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজনের সঙ্গে দেখা করেন তারা। প্রধান নির্বাহী তাদের আশ্বস্ত করেছেন সপ্তাহ খানেকের ভেতর বোর্ড সভাপতির সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নেবেন।

    ব্রাদার্স সুপার লিগে উঠতে না পারায় তাদের লিগ শেষ হয় ৯ জুন। নিয়ম অনুযায়ী লিগের শুরুতে চুক্তির ৩০ শতাংশ, সুপার লিগের শুরুতে ৩০ শতাংশ আর লিগ শেষ হওয়ার ৬ সপ্তাহের মধ্যে বাকি ৪০ শতাংশ অর্থ বুঝে পাবেন ক্রিকেটাররা। অথচ ব্রাদার্স কর্মকর্তারা এখনো দ্বিতীয় ধাপের টাকাই পরিশোধ করেনি। ফলে খেলোয়াড়দের কাছে ক্লাবের বকেয়া মোট অর্থের ৭০ শতাংশ।

    ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শেষ হয়েছে মাস খানেক আগে। এক-দুই করে প্রায় ৬ সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও বকেয়া টাকা ঠিকমতো বুঝে না পাওয়ায় ভীষণ হতাশ শাহরিয়ার নাফীস।

    এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ক্লাব কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করে কোনো কথাই পাওয়া যাচ্ছে না। রোজার ঈদের আগে একটা আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্ত এর পর তারা পাওনার ব্যাপারে কোনো আশ্বাস বা আলোচনা করেনি। আমরা মাত্র ৩০ শতাংশ পেয়েছি। এই সময়ের মধ্যে শতভাগ পেয়ে যাওয়ার কথা ছিল। এখন পর্যন্ত দ্বিতীয় ধাপের টাকাই আমরা পাইনি। তৃতীয় ধাপের তো প্রশ্নই আসে না।’

    মঙ্গলবার দুপুরে শাহরিয়ার নাফীস, নাফিস ইকবাল, সঞ্জিত সাহা, নাবিল সামাদসহ ব্রাদার্সের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার একত্রিত হয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরীর সঙ্গে দেখা করেছেন। ভিক্টোরিয়ার পর প্রিমিয়ার লিগের প্রাপ্য পারিশ্রমিক না পাওয়ায় এবার বিসিবির দ্বারস্থ হয়েছেন ব্রাদার্সের ক্রিকেটাররা।

    এ প্রসঙ্গে শাহরিয়ার নাফীস, ‘আমরা খেলোয়াররা সবাই একত্রিত হয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহীকে জানালাম। তারা কিন্তু আমাদের কমিটমেন্ট করেছিল কোনো কারণে যদি পেমেন্ট ঠিকমতো না হয় তাহলে বিসিবি দেবে। ঈদের আগে দুটি ক্লাবের পেমেন্ট বিসিবি করে দিয়েছে। ৭০ ভাগ বাকি আছে। শতভাগ দেয়ার ডেডলাইন শেষ। আমরা বলেছি পাওনার ব্যাপারটা যাতে গুরুত্ব সহকারে দেখা হয়।’

    বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগই ক্রিকেটারদের আয়ের মূল উৎস। জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের বাইরে যারা আছেন তারা ঢাকা লিগের পাওয়া অর্থ দিয়েই চলে থাকেন। আর তাই ক্রিকেটারদের কাছে প্রিমিয়ার লিগের টাকার গুরুত্ব অনেক বেশি।

    এ বিষয়ে শাহরিয়ার নাফীস বলেন, ‘২০১৪ সালের আগস্টে প্রিমিয়ার লিগ হয়েছিল। এর পর প্রায় দুই বছর পর প্রিমিয়ার লিগ হলো। আমাদের ৯০ শতাংশ ক্রিকেটারের মূল আয়ের উৎস এটি। এমন হলে ক্রিকেট খেলাটাই এখন আমাদের কষ্ট হয়ে যাবে। যদিও বোর্ড সভাপতি জোর দিয়েই বলেছিলেন পেমেন্ট নিয়ে যদি কেউ গড়িমসি করে তাহলে বিসিবি দেবে। এই কারণে আমরা আশায় বুক বেধে আছি।

    (Visited 10 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *