Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / প্রচ্ছদ / ‘প্যাকেজ প্রোগ্রাম’ই হাসিনার টিকে থাকার নিশ্চয়তা

‘প্যাকেজ প্রোগ্রাম’ই হাসিনার টিকে থাকার নিশ্চয়তা

  • ০১-০৭-২০১৬
  • jkjk
    ঢাকা : বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘জনগণ মুখ ফিরিয়ে নেয়ায় ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে বর্তমান অবৈধ সরকার ভারতের সমর্থন পেতে তাদের সব সময় খুশি রাখতে ব্যস্ত। এ কারণে ভারতের কাছে দেশকে ক্রমান্বয়ে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত দিতে একের পর এক পদক্ষেপ বাস্তবায়িত করা হচ্ছে।’

    তিনি দাবি করে বলেন, ‘বাংলাদেশে দুঃশাসনের রথচক্র অব্যাহত গতিতে চালানোর জন্য একমাত্র ভারতের সঙ্গে ‘প্যাকেজ প্রোগ্রাম’ই হচ্ছে শেখ হাসিনা সরকারের টিকে থাকার নিশ্চয়তা।’

    শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন রিজভী।

    বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘ক্ষমতায় টিকে থাকতে এই অবৈধ সরকার বাংলাদেশের জনগণকে নয়, শুধু একটি পছন্দসই দেশকেই খুশি করতে ব্যস্ত। কারণ, বাংলাদেশের জনগণ এ অবৈধ সরকারের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। সেজন্য ক্ষমতা জোর করে টিকিয়ে রাখতে ভারতের সমর্থন পাওয়ার জন্য তাদের কাছে দেশকে ক্রমান্বয়ে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত করে দিতে একের পর এক পদক্ষেপ বাস্তবায়িত করা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে দেশি-বিদেশি পরিবেশবাদীদের নিষেধ এবং দেশের মানুষের প্রতিবাদকে উপেক্ষা করে পরিবেশবিনাশী কয়লা পুড়িয়ে রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে। ১৯২ টাকায় ট্রানজিটের নামে করিডোর দেয়া হয়েছে।

    দেশের মানুষের ওপর সর্বক্ষেত্রেই করের বোঝা চাপানো হয়েছে উল্লেখ করে রিজভী বলেন, ‘জবাবদিহিতা নেই বলেই বিএনপির মিছিল দেখলেই করা হয় গুলি। অথচ সীমান্তে বিএসএফ দু-একদিন পরপরই বাংলাদেশিদের হত্যা করলেও এর বিরুদ্ধে আমাদের সীমান্ত রক্ষীরা আর একটা গুলিও ছুঁড়তে পারেন না।’

    এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে প্রবাহিত অভিন্ন চুয়ান্নটি নদীর পানি ভারতের শুকনো অঞ্চলে সরিয়ে নেয়ার উদ্যোগ শুরু হলেও তাবেদার সরকারের মুখ থেকে প্রতিবাদের একটি শব্দও বের হয় না। অথচ বিএনপির চেয়ারপারসন, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান এবং জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে গলা ফাটিয়ে বিষোদগার করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের খেতাব পেতে পারেন।’

    সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, সহ-দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু, স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম-সম্পাদক আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

    (Visited 19 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *