Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / প্রচ্ছদ / প্রধানমন্ত্রী, আপনার মন্ত্রীকে থামান

প্রধানমন্ত্রী, আপনার মন্ত্রীকে থামান

  • ১৪-০৬-২০১৬
  • ioui

     

    ঢাকা: ক্ষমতাসীন মহাজোট শরিক জাসদ সম্পর্কে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফকে ‘কাদা ছোড়াছুড়ির’ বক্তব্য দেয়া থেকে বিরত রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনুরোধ জানিয়েছেন দলটির (জাসদ) নেতারা।

    মঙ্গলবার (১৪ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনুকে সম্প্রতি কাফনের কাপড় পাঠিয়ে হত্যার হুমিক দেয়ার প্রতিবাদে এক বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে তারা এ আহ্বান জানান।

    গতকাল সোমবার (১৩ জুন) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে জাসদকে একটি ‘হঠকারী’ সংগঠন আখ্যা দিয়ে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

    সমাবেশে এ বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আনোয়ার হোসেন প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘আপনি (শেখ হাসিনা) আপনার মন্ত্রীকে থামান। ঐক্য বিনষ্টকারীকে থামান। আপনাকে পরিষ্কার করতে হবে, আপনি ঐক্য চান কি চান না।’

    তিনি বলেন, ‘আপনি মুখে ঐক্যের কথা বলবেন আর ঐক্য বিনষ্টকারীরা কাদা ছোড়াছুড়ি করবে। জাসদ এসব মেনে নিতে পারে না।’

    কাদা ছোড়াছুড়ির বক্তব্য শরিক দলগুলোর মধ্যে ঐক্য বিনষ্ট করবে বলে মন্তব্য করেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সাধারণ সম্পাদক শিরিন আক্তারও। তিনি বলেন, ‘হাসানুল হক ইনুর নেতৃত্বে জাসদ জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। দেশকে সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে সরকারের সঙ্গে কাজ করছে। অথচ সৈয়দ আশরাফের জাসদ প্রসঙ্গে বক্তব্য সবার মধ্যে ঐক্য বিনষ্ট করার ইঙ্গিত।’

    ইনুকে যারা হত্যার হুমকি দিয়েছে তারা কাপুরুষ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে হাসানুল হক ইনু যে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন, হত্যার হুমকি দিয়ে এই যুদ্ধ স্তব্ধ করা যাবে না।’

    বিক্ষোভ সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, জাসদের সহসভপতি শহিদুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর সমন্বয়কারী নূরুল আক্তার, জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শওকত রায়হান প্রমুখ।

    প্রসঙ্গত, গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানে সৈয়দ আশরাফ বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার ক্ষেত্র তৈরি করেছিল জাসদ। এদের কারণেই দলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়িত হয়নি। দেশের অগ্রগতি বাধাগ্রস্ত হয়েছে। আবার তাদের মধ্য থেকে একজনকে মন্ত্রী করা হয়েছে। এর প্রায়শ্চিত্ত আজীবন আওয়ামী লীগকে করতে হবে।’

    (Visited 40 times, 1 visits today)

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *