Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / আরও / ৫০ পয়সা কেজি কাচা আম! – Songbad Protidin BD

৫০ পয়সা কেজি কাচা আম! – Songbad Protidin BD

  • ০৪-০৫-২০১৭
  • Mangobg20170503213850চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি>  চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার বিভিন্ন গ্রামের মোড়ে মোড়ে ও হাট-বাজারে ৫০ পয়সা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে কাচা আম। এমনকি অনেক বাগানে বুধবার দুপুর পর্যন্ত আম পড়ে থাকতে দেখা গেছে। আম কুড়ানোরও মানুষ নেই। কারণ, এসব ছোট ছোট অপরিপক্ক আম আড়তদারদের কাছে অনুরোধ করে বিক্রি করতে হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকা মণ দরে।

    গত মঙ্গলবার ও বুধবার জেলার বিভিন্ন হাট-বাজার ও বেশ কয়েকটি আমবাগান ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে।

    সরেজমিনে শিবগঞ্জের বেঁকির মোড়, পুকুরিয়া পেট্রোলপাম্প, কানসাট, ধুপপুকুর, ধোবড়াবাজার, শ্যামপুর, খন্দাকামাত, খাসের হাট, চককৃর্তি এলাকায় শত শত মণ আম ছোট ছোট ছেলেদের কাছ থেকে কিনে জড়ো করেছে ক্ষুদ্র আম ব্যবসায়ীরা।

    গত সোমবার সন্ধ্যায় শিবগঞ্জের উপর দিয়ে কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যায়। এ সময় ব্যাপক শিলা বৃষ্টি হয়। এতে অধিকাংশ গাছের আম ঝড়ে পড়ে যায়। ঝড়ে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় উপজেলার বিনোদপুর, শ্যামপুর, শাহবাজপুর, মোবারকপুর, চককৃর্তি, কানসাট ও দাইপুকুরিয়া ইউনিয়নের। এসব এলাকার ছোট বড় অসংখ্য আম গাছ উপড়ে পড়েছে। সে কারণে গাছে ঝুলে থাকা অপরিপক্ক আম পড়ে যায়।

    বিনোদপুর ইউনিয়নের রসুন চক গ্রামের ফজলু বলেন, ‘‘গত সোমবার সন্ধ্যার ঝড়ে পড়া প্রায় সাড়ে ৫ মণ আম কুড়াই। কুড়ানো আমের প্রায় ২০ কেজি আচারের জন্য রাখে বাকি আম বাজারে বিক্রি করি ৫০ পয়সা কেজি দরে।’’

    পুকুরিয়া গ্রামের নাসরিন জানান, তিনি প্রায় দেড় মণ আম কুড়িয়েছেন। ওই আম ৫০ পয়সা কেজি দরে কানসাটের এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করেন।

    বেলাল বাজারের আম ব্যবসায়ী সামসুর রহমান সংবাদ প্রতিদিন বিডি প্রতিনিধিকে জানান, ৭ লাখ টাকায় তার দুটি আম বাগান কেনা ছিল। বাগান দুটিতে প্রায় ১১ থেকে ১২ লাখ টাকার আম ছিল। কিন্তু গত সোমবারের ঝড়ে প্রায় আম গাছ পড়ে গেছে। ওই বাগান দুটিতে এখন ৫০ হাজার টাকার আমও নেই। একই অবস্থা অধিকাংশ আম বাগান মালিকদের।

    ধোবড়া বাজারের এক ক্ষুদ্র আম ব্যবসায়ী জানান, তিনি মঙ্গলবার ভোর থেকে বুধবার পর্যন্ত কয়েক ট্রাক আম কিনেছেন ২৫ থেকে ৩০ টাকা মণ দরে। তার কেনা আম ঢাকা, সিলেট, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানো হচ্ছে।

    এ বিষয়ে শিবগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আমিনুজ্জামান জানান, বিনোদপুর, শ্যামপুর, শাহবাজপুর, মোবারকপুর ও দাইপুকুরিয়া ইউনিয়নের বাগানগুলোর আম বেশি নষ্ট হয়েছে। ওই সব এলাকার বাগানের প্রায় ৫০ শতাংশ আম পড়ে নষ্ট হয়ে গেছে।

    সংবাদ প্রতিদিন বিডি।   মোঃ আবু জাফর মুজাহিদ 

    (Visited 38 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *