Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / সর্বশেষ / বোমা তৈরিতে আঙ্গুল হারানো সেই ছাত্রসহ আটক ২

বোমা তৈরিতে আঙ্গুল হারানো সেই ছাত্রসহ আটক ২

  • ১৯-০৭-২০১৬
  • 20yghgজেলার কমলগঞ্জ উপজেলার ফুলবাড়ি চা বাগানে ঘরের ভেতর হাত বোমা বানাতে গিয়ে বিস্ফোরণে আঙ্গুল হারানো মাদ্রাসা ছাত্র রজব মিয়াকে (১৬) আটক করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাকে আটক করা হয়েছে। বর্তমানে সে ওই হাসপাতালে পুলিশি পাহারায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।

    রজব আলী ফুলবাড়ি চা বাগানের ১নং শ্রমিক বস্তির চাঁন মিয়া ওরফে চান্দু মিয়ার ছেলে। সে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়ার দৌলতবাড়ির একটি মাদ্রাসায় পড়াশুনা করে। এই ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কালা মিয়া নামে আহত ছাত্রের চাচাকেও আটক করা হয়েছে।

    জানা যায়, গত ১৫ জুলাই শুক্রবার ফুলবাড়ি চা বাগানের ১নং শ্রমিক বস্তির চাঁন মিয়া ওরফে চান্দু মিয়ার ঘরে তার ছেলে রজব হাত বোমা বানাচ্ছিল। আকস্মিকভাবে বোমা বিস্ফোরিত হলে তার বাম হাতের দুটি আঙ্গুল উড়ে যায়। ঘটনায় ফুলবাড়ি চা বাগান শ্রমিক বস্তিতে আতঙ্ক সৃষ্টি হলে তার বাবা ও স্বজনরা গোপনে আহত ছেলেকে নিয়ে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

    চা বাগানের শ্রমিকরা জানান, মাটির দেয়ালের টিন শ্যাডের ঘরে বিকট শব্দে বোমা বিস্ফোরণ ঘটে। প্রথমে বিদ্যুতের ট্রান্সমিটার বিস্ফোরণ ধারণা করলেও পরে দেখেন চাঁন মিয়ার ঘরেই এই ঘটনা। এসময় আলামত নষ্ট করতে স্থানটি নতুন করে মাটি দিয়ে প্রলেপ দেওয়া হয়েছে। পারিবারিকভাবে বিষয়টি গোপনীয়তা রক্ষা করা হয় বলে তাৎক্ষণিকভাবে বিশেষ কিছু জানা যায়নি।

    ফুলবাড়ি চা বাগান কর্তৃপক্ষ জানান, বাগান পঞ্চায়েতের মাধ্যমে ঘটনার সত্যতা জানতে সময় লেগে গেছে দুইদিন। রোববার মৌলভীবাজারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোল্লা মোহাম্মদ শাহীন সরেজমিন তদন্তে আসলে প্রকৃত সত্যতা বেরিয়ে আসে।

    এবিষয়ে মোলা মোহাম্মদ শাহীন বলেন, বিষয়টি জানতে পেরে গোপনে তদন্ত মাধ্যমে তাদেরকে সিলেট থেকে খোঁজে বের করা হয়। এর রোববার রাতে রজবকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে। আটক অবস্থায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রজব স্বীকার করেছে ককটেল বানাতে গিয়ে বিস্ফোরণে সে আহত হয়েছে। এরপর হাসপাতালে ছদ্ম নামে ভর্তি হয়। এমনকি পুলিশি ঝামেলা এড়াতে একবার ওয়ার্ড ও পরিবর্তন করে। তবে হাসপাতালের প্রশাসনিক কিছু জটিলতার কারণে রজবকে পুরোপুরি সুস্থ্য না হওয়া পর্যন্ত পুলিশি পাহারায় চিকিৎসাধীন রাখা হয়।

    তবে মাদ্রাসা ছাত্রের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে তার চাচা কালা মিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সোমবার রাতে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে আরো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যেতে পারে বলেও সহকারী পুলিশ সুপার জানান।

    (Visited 1 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *