Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / জাতীয় / বৃষ্টি মাথায় নিয়ে শিমুলিয়ায় ঘরমুখো মানুষের ঢল

বৃষ্টি মাথায় নিয়ে শিমুলিয়ায় ঘরমুখো মানুষের ঢল

  • ০৫-০৭-২০১৬
  • ????????????

    ????????????

    ঈদের ছুটিতে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অন্যতম প্রবেশদ্বার শিমুলিয়া ফেরিঘাটে রাজধানী ছেড়ে আসা ঘরমুখো মানুষের ঢল বেড়েই চলেছে।

    ভোররাত থেকে নাড়ির টানে ঝড় বৃষ্টি মাথায় নিয়ে পদ্মা পাড়ি দিয়ে ছুটে চলেছেন এসব ঘরমুখো মানুষেরা। এ সময় ছিল ফেরি পারাপারের যানবাহনেও বাড়তি চাপ।

    পর্যাপ্ত ফেরি ও কর্তৃপক্ষের দিনভর তদারকিতে দুপুর ১টার পর শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটে যানবাহনের চাপ একেবারেই কমে যায়।

    দেখা গেছে, সকালের দিকে শিমুলিয়ার তিনটি ঘাটে ফেরি পারাপারের যানবাহনের দীর্ঘ লাইন। ভোররাত থেকেই ফেরিঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় যাত্রীদের বাড়তি চাপে তিনটি ঘাটে ঘণ্টার পর ঘণ্টাব্যাপী আটকে ছিল পরিবহনগুলো।

    বেলা সাড়ে ১২টায় ঘাটে শুধুমাত্র অর্ধশত ছোট গাড়ি ছাড়া যাত্রীবাহী কোনো যানবাহন ছিল না বলে বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের কাউন্টার স্টাফ মো. রফিক জানান।

    সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি ও শিমুলিয়া-মাঝিকান্দি নৌপথে লঞ্চ ঘাটে ছিল যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়। লঞ্চে আগে ওঠার প্রতিযোগিতায় কিছু কিছু ঘরমুখো যাত্রীরা নিজেরাই অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে লঞ্চে উঠছেন।

    অতিরিক্ত চাপের কারণে এ অবস্থা দেখা দিয়েছে বলে খোদ কর্তৃপক্ষ ও লঞ্চমালিকরাই স্বীকার করছেন।

    তবে কর্তৃপক্ষের দাবি চাপ স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি থাকায় কিছু কিছু যাত্রী কোনো বাধাই মানছেন না। তারা নীচে না গিয়ে লঞ্চের সামনে অবস্থান করছেন।

    ওভারলোডিং ঠেকাতে বিআইডব্লিউটিএ, নৌপুলিশসহ অন্যান্য মোবাইল টিম ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

    সি-বোট কাউন্টারে আর পন্টুনে ছিল উপচে পড়া ভিড়। তবে এসব যাত্রীদের লাইফ জ্যাকেট পড়িয়ে পদ্মা পাড়ি দিচ্ছেন স্পীডবোট যাত্রীরা।

    শিমুলিয়া নদীবন্দরের (ট্রাফিক) ইনেপেক্টর মো. সোলেমান জানান, সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত লঞ্চঘাটে যাত্রীচাপ স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি দেখা দেয়। মঙ্গলবার বিরূপ আবহাওয়ায় এ রুটে ৮৭টি লঞ্চ চলাচলে কোনো সমস্যা হচ্ছে না।

    অভারলোডিং ঠেকাতে এখানে ডিজি সিপিংসহ নৌপুলিশ,সেনাবাহিনীর সদস্যরা সর্বাত্মক তদারকি চালাচ্ছেন বলে তিনি জানান।

    (Visited 4 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *