Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / Slide Show / বঙ্গবন্ধু ও তাজউদ্দীন একে অপরের পরিপূরক

বঙ্গবন্ধু ও তাজউদ্দীন একে অপরের পরিপূরক

  • ২৪-০৭-২০১৬
  • 2jhhjবঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাজউদ্দীন আহমদ একে অপরের পরিপূরক বলে মন্তব্য করেছেন গণফোরামের সভাপতি ও বিশিষ্ট আইনবিদ ড. কামাল হোসেন।

    শনিবার সন্ধ্যায় ধানমন্ডির গ্যালারি টোয়েন্টি ওয়ানে আয়োজিত বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের দুর্লভ আলোকচিত্র নিয়ে মাসব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনকালে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

    তিনি বলেন, ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান, সত্তরের অসহযোগ আন্দোলন থেকে মুক্তিযুদ্ধের পরে স্বাধীন বাংলাদেশের সংবিধান রচনা সব ক্ষেত্রেই তাজউদ্দীন আহমদের ভূমিকা ইতিহাসে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।

    তাজউদ্দীন আহমেদের কন্যা সিমিন হোসেন রিমির সঞ্চালনায় এ অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন- বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক প্রমুখ।

    তাজউদ্দিন আহমেদকে নিয়ে এ আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ছবির মধ্যে আছে, একাত্তরে শত্রুমুক্ত হওয়া যশোরের মুক্তাঞ্চলে তাজউদ্দীন আহমদের দীপ্ত ভঙ্গিতে বক্তৃতার দৃশ্য, জননেতার রণাঙ্গন পরিদর্শনের ছবি, একাত্তরের এপ্রিলে মেহেরপুরে গঠিত মুজিবনগর সরকারের প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন সংগ্রামী জনতার মাঝে দাঁড়িয়ে সরকারের রূপরেখা ঘোষণা করছেন, আরেক ছবিতে সত্তরের নির্বাচনে বিজয়ের পর সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দিচ্ছেন এ অবিসংবাদিত নেতা। আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা থেকে মুক্তির পর বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে ফ্রেমবন্দি হয়েছেন তার ঘনিষ্ঠ সহযাত্রী তাজউদ্দীন। আছে ঊনসত্তরের গণঅভ্যূত্থানের সময় এক জনসভায় উদ্দীপ্ত ভঙ্গিতে তাজউদ্দীনের বক্তৃতা দেয়ার দৃশ্য। ১৯৬৬ সালে মুক্তিযুদ্ধের আগে পরিবারের সঙ্গে ক্যামেরাবন্দি হয়েছেন জননেতা। তার কোলে স্নেহের বন্ধনে আশ্রয় নিয়েছে ছেলে সোহেল তাজ। পাশে অবস্থান করছেন সহধর্মিনী জোহরা তাজউদ্দীন। সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে আছে তিন মেয়ে রিমি, রিপি ও মিমি, একাত্তরের ৬ ডিসেম্বর ভারতের পক্ষ থেকে স্বাধীনতার স্বীকৃতি মেলার পর আকাশবাণীর এক সাংবাদিকের সঙ্গে আলাপকালে বঙ্গবন্ধুর কথা স্মরণ করে তার চোখের কোণ গড়িয়ে ঝরছে অশ্রুজল। একাত্তরের নভেম্বর মাসে ধারণকৃত আরেক ছবিতে বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রীকে দেখা যায় ভারতের কৃষ্ণনগরের মিলিটারি ফিল্ড হাসপাতালে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে স্বাধীনতা যুদ্ধের আগের ও পরের অনেক ছবি, শীতলক্ষ্যা নদীর পাড়ে শান্ত ভঙ্গিমায় দাঁড়িয়ে আছেন তাজউদ্দিন আহমেদ। ইতিহাসের স্মৃতি জাগানিয়া এমন ২৩২টি ছবি বিভিন্ন দুর্লভ আলোকচিত্র দিয়ে সাজনো হয়েছে এ প্রদর্শনী।

    রশিদ তালুকদার, আফতাব আহমেদ, মঞ্জুরুল আলম বেগ, গোলাম মাওলা, জহিরুল হক, পাভেল রহমানসহ দেশ-বিদেশের আলোকচিত্রীদের ছবি আছে এ প্রদর্শনীতে। প্রতিদিন বেলা ১২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে এ প্রদর্শনী।

    (Visited 8 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *