Templates by BIGtheme NET
Home / ব্রেকিং নিউজ / নির্বাচনমুখী আ’লীগ – Songbad Protidin BD

নির্বাচনমুখী আ’লীগ – Songbad Protidin BD

  • ২৮-০৫-২০১৭
  • al-elecসংবাদ প্রতিদিন বিডি রিপোর্টঃ  ভিশন ২০২১ বাস্তবায়ন করে ২০৪১ সালের লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে আগামী নির্বাচন আওয়ামী লীগের সামনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এ নির্বাচনে জয়লাভ করে নিজেদের শাসনামলেই ২০২১ সালের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করতে চায় দলটি। আর এক্ষেত্রে সামনের নির্বাচনকে লক্ষ্য করে পুরো দলকে ঢেলে সাজাচ্ছে আওয়ামী লীগ। দলীয় শৃঙ্খলা রক্ষা, অবকাঠামোগত উন্নয়ন, প্রযুক্তিগত দক্ষতা অর্জনসহ বিভিন্ন বিষয় ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে ক্ষমতাসীনরা।

    আওয়ামী লীগের দলীয় সূত্রগুলো বলছে, আগামী নির্বাচনের জন্য সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডগুলোর চিত্র তুলে ধরে আগেভাগেই প্রচারণা শুরু করতে চায় দলটি। আর এক্ষেত্রে আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে চায় ক্ষমতাসীনরা। সেজন্যই দলীয় কার্যালয়গুলোকে সেভাবে সাজানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি প্রযুক্তি ব্যবহারে দলের নেতাকর্মীদের প্রশিক্ষণও দেওয়া হচ্ছে।

    এছাড়া জনগণের সাথে নেতাদের সম্পৃক্ততা যাচাইয়েও কাজ শুরু করেছে আওয়ামী লীগ। পাশাপাশি নেতাদের দ্বন্দ্ব সামলাতে কঠোর হওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে দলটি। আর সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে জনআকাঙ্খার গতিপ্রকৃতির দিকে নজর দিচ্ছে আওয়ামী লীগ, সে অনুযায়ী পরবর্তী নির্বাচনী ইশতেহার তৈরি করতে কাজ করছে দলটির থিংক ট্যাংকরা। অন্যদিকে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের আসন ভাগাভাগি ও জোটের পরিধি বাড়ানোর বিষয়েও দলটির অভ্যন্তরে আলোচনা চলছে।

    তবে নির্বাচনের জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারণা চালানোকেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে দলটি। আর দলীয় নেতাকর্মীদের প্রশিক্ষিত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্রচারণায় নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার অংশ হিসেবে সম্প্রতি দলীয় ১৩৪ জন সাংসদকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের কৌশল সংক্রান্ত তিনদিনের প্রশিক্ষণ দিয়েছে আওয়ামী লীগ। ক্রমবর্ধমান জনপ্রিয় এই প্লাটফর্মে সরকারের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে তরুণ ভোটারদের আকৃষ্ট করতেই এই প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

    ধানমন্ডিতে দলের নতুন নির্বাচনী পরিচালনা কার্যালয়ে ওই প্রশিক্ষণে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় দলীয় নির্বাচনী কৌশল তুলে ধরে সাংসদদের বলেন, আমাদের তরুণরা কিন্তু এখন খবরের কাগজ পড়েই না। তারা সামাজিক মাধ্যম থেকে তথ্য নিচ্ছে। সেখানে আমাদের উন্নয়নের তথ্যগুলো তুলে ধরতে হবে।

    ভোটের হিসাবনিকেশ থেকেই দলকে গোছানোর অংশ হিসেবে এ প্রশিক্ষণ প্রদানের কথা্ জানিয়েছেন প্রশিক্ষণ পরিচালনা করা আওয়ামী লীগের গবেষণা সেল সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের পলিসি এনালিস্ট এবং আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা উপকমিটির সদস্য ব্যরিস্টার শাহ আলী ফরহাদ  সংবাদ প্রতিদিন বিডিকে তিনি বলেন, প্রবীণ সাংসদরা নিজের প্রচারে অনীহা প্রকাশ করেন। তারা ভাবেন চুপচাপ ভাল কাজ করলে ভোট পাবেন। কিন্তু এ যুগে আপনাকেই জানাতে হবে। সাংসদ হিসেবে তারা কি করছেন, সেটা জনগণকে জানানো গুরুত্বপূর্ণ।

    সামাজিক মাধ্যমে প্রচারনা চালিয়ে বিশ্বনেতারা নির্বাচনে ইতিবাচক ফল পেয়েছেন জানিয়ে প্রশিক্ষণে প্রয়োজনে সহযোগীর মাধ্যমে সামাজিক মাধ্যমে সাংসদদের সক্রিয় থাকতে বলা হয়েছে বলেও জানান ফরহাদ।

    আর নেতাদের প্রযুক্তিগত দক্ষতা বাড়ানোর তাগিদ থেকেই তৃণমূল কার্যালয়গুলোর অবকাঠামো উন্নয়নেও নজর দিচ্ছে আওয়ামী লীগ। গত ২১ শে মে আওয়ামী লীগের ৭৮ টি জেলা শাখাকে কম্পিউটার প্রদান করেছে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ। নির্বাচনে প্রচারণা চালাতে পর্যায়ক্রমে তৃণমূলের নেতাদেরও প্রযুক্তিগত প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। আর এজন্য প্রতিটি জেলা কার্যালয়ে স্থায়ী অফিস তৈরির কাজ শুরু করেছে দলটি।

    গত সোমবার তৃণমূল নেতাদের সাথে মতবিনিময় সভায় দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, যেসব জেলা শাখার অফিস নেই, তারা আজই তালিকা দিয়ে যাবেন। আমরা পর্যায়ক্রমে আপনাদের স্থায়ী অফিস করে দিবো। অফিস না থাকলে সামনে যে নির্বাচন, সেজন্য যথাযথভাবে কাজ করা সম্ভব না।

    এদিকে চলতি মাসেই আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ডের সভায়ও পরবর্তী নির্বাচনে দলীয় প্রচারণায় সক্রিয় হওয়ার পাশাপাশি জনসম্পৃক্ততা বাড়াতে সাংসদের তাগিদ দেওয়া হয়েছে দলের শীর্ষপর্যায় থেকে। খোদ দলপ্রধান শেখ হাসিনা জনসম্পৃক্ততা না থাকলে কাউকে মনোনয়ন দেওয়া হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন।

    এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন সংবাদ প্রতিদিন বিডিকে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ীই আমরা মাঠ পর্যায়ে বিষয়টি দেখব। জনপ্রিয়তা না থাকলে তো কাউকে মনোনয়ন দেওয়া যাবে না। কার জনসম্পৃক্ততা কেমন সে খবর আমাদের কাছে চলে আসবে, সে অনুযায়ী মনোনয়ন প্রদান করা হবে। নেতাদেরও সেভাবে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

    এদিকে নির্বাচনের মনোনয়ন দৌড়ের অংশ হিসেবে তৃণমূলে দ্বন্দ্বে জড়াচ্ছে নেতাকর্মীরা। যা নির্বাচনে প্রতিপক্ষের তুলনায় আওয়ামী লীগের জন্য বেশি দুশ্চিন্তার কারণ হিসেবে রয়েছে। সর্বশেষ কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে পরাজয়ের পর থেকেই এ বিষয়ে গুরুত্ব দিচ্ছে দলটি। কিন্তু সেজন্য বিবাদমান বিভিন্ন জেলার নেতাদের ডেকে এনে দলের সাধারণ সম্পাদকের সভার ফলাফল নিয়েও দলে প্রশ্ন রয়েছে। গত সপ্তাহে গণভবনে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় তৃণমূলে দ্বন্দ্বের বিষয়টি ফের উঠে আসলে গত সোমবার আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভায় এ নিয়ে ভিন্নমত দেখা দেয়। কেন্দ্রে তৃণমূলের নেতাদের ডেকে এনে সমস্যা সমাধানের চেষ্টায় বিভেদ আরও বাড়ছে বলে কয়েকজন নেতা সভায় মত দেন। এজন্য তারা স্থানীয় সমস্যাকে স্থানীয়ভাবে সমাধানের পরামর্শও দেন।

    তৃণমূলের দূরত্ব কমিয়ে আনার চেষ্টার কথা জানিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান সংবাদ প্রতিদিন বিডিকে বলেন, আমরা একটা চ্যালেঞ্জ হিসেবে এবারের নির্বাচনটাকে নিয়েছি। এক্ষেত্রে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে যেই যাবে, সে যত শক্তিশালীই হোক না কেন; তার আর দলে থাকার সুযোগ থাকবে না। এ ধরনের একটা কঠিন সিদ্ধান্ত আছে আমাদের, এ ব্যবস্থাটা থাকবে।

    নির্বাচনকে সামনে রেখে দলের নতুন সদস্য বাড়ানোর কার্যক্রমও চলছে আওয়ামী লীগের। এজন্য নতুন ভোটার ও নারী ভোটারদের গুরুত্ব দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ওবায়দুল কাদের। আর ভিন্ন ভিন্ন পেশা ও ধর্মমতের ভোটারদের দলে ভিড়াতেও কাজ শুরু করেছে ক্ষমতাসীনরা। এজন্য আইনজীবীদের বিবাদমান দুটি পক্ষকে এক করার পর দলের ইসলামিক ফ্রন্ট তৈরির পরিকল্পনা করছে আওয়ামী লীগ।

    আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন সংবাদ প্রতিদিন বিডিকে বলেন, জনগণের আকাঙ্খাকে গুরুত্ব দিয়ে আগামী নির্বাচনের ইশতেহার তৈরির কাজ চলছে। এক্ষেত্রে সব ধরনের ভোটারদের কাছে টানার চেষ্টা থাকবে। কারণ আমরা তো মধ্যপন্থার দল; ডান-বামের ভাল বিষয়গুলো আমরা নিচ্ছি।

    তিনি বলেন, ইসলামিক ফ্রন্টের বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে, এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি। দেশের অধিকাংশ মানুষ যেহেতু ধর্মমনা, সেক্ষেত্রে এটি খারাপ হবে না। আর আমাদের আদর্শের সাথে যায়, সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী এমন ইসলামী দলগুলোর সাথে আমাদের নির্বাচনী জোটও হতে পারে। সময়ই সেসব বলে দিবে।

    সংবাদ প্রতিদিন বিডি/ ইকবাল আহমেদ  

    (Visited 26 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *