Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / সংবাদ প্রতিদিন » স্পেশাল / থ্রিজি প্রযুক্তির বাইরে সাড়ে ৮ কোটি গ্রাহক – Songbad Protidin BD

থ্রিজি প্রযুক্তির বাইরে সাড়ে ৮ কোটি গ্রাহক – Songbad Protidin BD

  • ২৬-০৫-২০১৭
  • three-gসংবাদ প্রতিদিন বিডি রিপোর্টঃ   প্রযুক্তির আধুনিকায়নে দেশের সব সেলফোন অপারেটরই তৃতীয় প্রজন্মের নেটওয়ার্ক ‘থ্রিজি’ সম্প্রসারণে ব্যস্ত। এজন্য বিনিয়োগ করা হচ্ছে বড় অংকের অর্থ। তবে সে হারে বাড়ছে না থ্রিজি গ্রাহক। দেশে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ১২ কোটি ১০ লাখ হলেও থ্রিজি ব্যবহারকারী তিন কোটি ৪৫ লাখ। অর্থাৎ থ্রিজি প্রযুক্তি ব্যবহার করছে না প্রায় সাড়ে আট কোটি গ্রাহক। আর এর বড় একটি অংশ রয়েছে মফস্বলে।
    প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালে দেশে থ্রিজি সেবা চালুর নীতিগত সিদ্ধান্ত হলেও ২০১৩ সালের ৮ সেপ্টেম্বর থেকে চালু হয় এ প্রযুক্তি। এরপর প্রায় চার বছরেও এ প্রযুক্তি ব্যবহারের হার তুলনামূলকভাবে ধীর। যদিও দেশের প্রায় ৮০ শতাংশ এলাকা থ্রিজি নেটওয়ার্কের আওতায় রয়েছে।
    জানা যায়, গ্রামগঞ্জের মানুষ মোবাইল ফোন ব্যবহার করলেও অনেকেই প্রযুক্তির বিষয়ে জ্ঞানহীন। ইন্টারনেট কীভাবে ব্যবহার করতে হয়, ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধা কী, থ্রিজি প্রযুক্তি কী ইত্যাদি বিষয়ে তাদের ধারণা নেই। অন্যদিকে থ্রিজি প্রযুক্তি ব্যবহারকারীদের একটি উল্লেখযোগ্য অংশ এ সুবিধা পাচ্ছে না।
    প্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বার এ বিষয়ে বলেন, ‘উন্নত দেশগুলো থেকে আমাদের দেশ থ্রিজি প্রযুক্তিতে অনেক পিছিয়ে। যদিও অনেক দেশ থ্রিজি প্রযুক্তি পেরিয়ে ৪জি প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। সেখানে আমাদের জন্য এটি একটি বড় ধাক্কা। এখনও আমাদের দেশে সব জায়গায় নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা ততটা শক্তিশালী না, অনেক সময় নেটওয়ার্ক ফল্ট করে। পাশাপাশি টেলিকম কোম্পানিগুলোর তেমন কোনো ভূমিকা না থাকায় থ্রিজি প্রযুক্তি ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ছে না।’
    তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর একটি বড় অংশ প্রযুক্তির সুবিধার বাইরে। সব মোবাইল ফোনে থ্রিজি ব্যবহার হয় না, অনেক ফোন থ্রিজি হলেও তারা অনেকেই ইন্টারনেট ব্যবহার করে না। তবে বর্তমান প্রজন্ম একটি শক্তিশালী ভূমিকা রাখছে প্রযুক্তি খাতে। শুধু বর্তমান প্রজš§ ছাড়া কেউ প্রযুক্তির আওতাভুক্ত নয়।’
    সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বাংলাদেশে থ্রিজি চালুর ক্ষেত্রে প্রধান বাধা হচ্ছে স্মার্টফোন। বর্তমানে থ্রিজি চালু থাকলেও পুরোপুরি এ সেবার সুবিধা পাচ্ছে না গ্রাহকরা। ঘনবসতি ও উঁচু-নিচু এলাকায় নেটওয়ার্ক সমস্যাসহ সব মিলিয়ে বাংলাদেশের অপারেটরগুলো থ্রিজি সংযোগের জন্য এখনও পুরোপুরি প্রস্তুত নয়। পাশাপাশি মোবাইল ফোনের মূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বেশি হওয়ায় এর সংখ্যা বাড়ছে না বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।
    এ বিষয়ে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান প্রকৌশলী শাহজাহান মাহমুদ বলেন, ‘মানুষের অর্থনৈতিক অবস্থার কারণে এখনও থ্রিজি ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের সংখ্যা বাড়ছে না। বিশেষ করে গ্রামের মানুষ প্রযুক্তি ব্যবহারের দিক থেকে সবচেয়ে বেশি পিছিয়ে। শহরে মানুষের আয় গ্রামের তুলনায় ভালো হওয়ায় তারা সহজেই কোনো কিছু ক্রয় করতে পারে, যেটি গ্রামের মানুষ চাইলেও পারে না। এছাড়া থ্রিজি ব্যবহারের আরেকটি বাধা হচ্ছে এ প্রযুক্তি ব্যবহারের উপযোগী মোবাইল ফোনের মূল্য ও ইন্টারনেট মূল্য একটু বেশি। এ বিষয়গুলো সমাধান করতে পারলে আশা করি থ্রিজি ইন্টারনেট ব্যবহারের সংখ্যা বাড়বে।
    সংবাদ প্রতিদিন বিডি/ ইকবাল আহমেদ 
    (Visited 9 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *