Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / আন্তর্জাতিক / গণভোটে হেরে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ

গণভোটে হেরে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ

  • ২৪-০৬-২০১৬
  • 2016_06_24_14_04_45_7oSfuVITUOEAIPWij1nK8Mfy4alrXf_original

    ঢাকা : গণভোটে ব্রিটেনের জনগণ ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পক্ষে রায় দেয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন। আগামী অক্টোবরে তিনি দায়িত্ব ছাড়বেন।

    শুক্রবার (২৪ জুন) প্রধানমন্ত্রীর অফিসিয়াল বাসভবন ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ঘোষণা দেন। এসময় কনজারভেটিভ এ নেতার পাশে ছিলেন আইনজীবী স্ত্রী সামান্থা।

    ‘কখনও কখনও সময় আসে জনগণকে জিজ্ঞেস করার, তারা কী চায়? তাদের ইচ্ছার প্রতি অবশ্যই সম্মান দেখাতে হবে’, ক্যামেরন বলেন। তিনি আরও বলেন, ‘ব্রিটেনের জনগণের এ নির্দেশনা অবশ্যই বাস্তবায়ন করতে হবে।’ এসময় তার কণ্ঠ রুদ্ধ হয়ে আসছিল।

    প্রধানমন্ত্রী বলেন, ব্রিটেনের জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে ৬ বছর ধরে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছি। এটি আমার জন্য অনেক সম্মানের।

    আগামী অক্টোবরে দায়িত্ব ছাড়বেন জানিয়ে ক্যামেরন বলেন, ওই সময়ে ক্ষমতাসীন দলের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে, যেখানে নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নতুন কাউকে মনোনীত করবে দলের নীতিনির্ধারকরা।

    তিনি বলেন, তার সরে দাঁড়ানোর এ ঘোষণায় এই জাহাজ চালাতে একজন নতুন ক্যাপ্টেন লাগবে। জাতিকে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যাওয়ার নেতৃত্ব দেয়ায় নিজেকে যোগ্য একজন ক্যাপ্টেন বলে আর মনে করছেন না ডেভিড ক্যামেরন।

    বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য হিসেবে থাকা না থাকা নিয়ে গ্রেট ব্রিটেনজুড়ে এ গণভোট অনুষ্ঠিত হয়। গণভোটে ইইউ ছাড়ার পক্ষে ভোট দেয় ৫২ শতাংশ নাগরিক, ইইউতে থাকার পক্ষে ভোট দেয় ৪৮ শতাংশ মানুষ।

    ভোট গণনার শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ব্রেক্সিট (ব্রিটিশ এক্সিট) এর পক্ষে পড়েছে ১ কোটি ৬৮ লাখ ৩৫ হাজার (৫২ শতাংশ) ভোট। অপর দিকে ইইউতে থাকার পক্ষে ভোট দিয়েছেন ১ কোটি ৫৬ লাখ ৯২ হাজার ভোটার।

    ভোট গণনার শুরুতে ইইউতে থাকার পক্ষে-বিপক্ষে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চললেও সময় যত গড়িয়েছে ব্রেক্সিট অর্থাৎ ইইউ ছাড়ার পক্ষে পাল্লা হেলে পড়ে তত বেশি।

    ইইউ জোটের পক্ষে-বিপক্ষের এ লড়াই অনেক জায়গায় হাড্ডাহাড্ডি হলেও শেষ পর্যন্ত মোট ভোটের হিসেবে বিজয়ী হয়েছে ইইউ জোট বিরোধীরা। ফলাফলে দেখা গেছে, সাউথ স্ট্যাটফোর্ডশায়ার, ল্যাংকাস্টার, নিউয়ার্ক এন্ড শেরউড, সাউথ হল্যান্ড, প্লাইমাউথ, ব্ল্যাকবার্ন-ডারওয়েনে  ইইউ ছাড়ার পক্ষে বেশি ভোট পড়েছে।

    ব্রিটেনের ইতিহাসে কোনো বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে এটি তৃতীয়বার গণভোট। ঐতিহাসিক এই গণভোটে বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ভোট দেন গ্রেট ব্রিটেনভুক্ত ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, উত্তর আয়ারল্যান্ড ও ওয়েলশের প্রায় সাড়ে ৪ কোটি ভোটার।

    ২৮টি দেশের ইইউ জোটে যোগ দিতে ১৯৭৫ সালে গণভোটে অংশ নেয় ব্রিটেনের মানুষ। তখন জনগণের মতের ভিত্তিতেই ইইউতে যোগ দেয়া ব্রিটেন। যদিও সাধারণ মুদ্রা ইউরোকে তারা গ্রহণ করেনি। ৪১ বছর পর সেই জোটে থাকা না থাকা নিয়ে বৃহস্পতিবার আবারো গণভোট হলো।

    ভোটগ্রহণ শেষে গণনা শুরু হয় ব্রিটেনের ৩৮২টি আঞ্চলিক কেন্দ্রে। পূর্ণাঙ্গ ফল ম্যানচেস্টার টাউন হল থেকে ঘোষণা করা হয়।

     

     

    (Visited 1 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *