Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / জাতীয় / এক মন্ত্রীসহ ৩০ সাংসদকে ন্যাম ফ্ল্যাট ছাড়ার চিঠি- Songbad Protidin BD

এক মন্ত্রীসহ ৩০ সাংসদকে ন্যাম ফ্ল্যাট ছাড়ার চিঠি- Songbad Protidin BD

  • ০৪-০৫-২০১৭
  • sagsodsm20170503212027সংবাদ প্রতিদিন বিডি ডেস্ক>  সংসদ সদস্য ভবনে ফ্ল্যাট বরাদ্দ নিয়েও মিরপুর ১৩-এ অবস্থিত ন্যাম ফ্ল্যাটে বসবাসরত এক মন্ত্রীসহ ৩০ জনকে ফ্ল্যাট ছেড়ে দিতে নোটিশ দিয়েছে জাতীয় সংসদ কমিটি। নোটিশের জবাবে চারজন সদস্য ফ্ল্যাট ছেড়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও বেশিরভাগই ফ্ল্যাটে না থাকার বিষয়টি কৌশলে এড়িয়ে গেছেন। এছাড়া কয়েকজন সদস্য নোটিশের জবাব এখনও দেননি বলে জানা গেছে।

    কমিটির সভাপতি হুইপ আ স ম ফিরোজের সভাপতিত্বে বুধবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে এ বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। সংসদ সদস্যদের আবাসন, ন্যামফ্লাটের নিরাপত্তা, অফিস বরাদ্দসহ বিভিন্ন বিষয় তদারকি করে সংসদ কমিটি।

    বৈঠক শেষে চিফ হুইপ আসম ফিরোজ বলেন, “ফ্ল্যাট বরাদ্দ নিয়েও থাকেন না এমন ৩০ জনকে আমরা চিঠি দিয়েছি। এরমধ্যে চারজন ফ্ল্যাট ছেড়ে দেবেন বলে জানিয়েছেন। তবে কেউ কেউ জবাবে লিখেছেন, তারা থাকেন। কেউ লিখেছেন, পরিবার থাকে। কেউ কেউ বলেছেন, মাঝে মাঝে এসে থাকেন।”

    তিনি আরও বলেন, “তবে অনেকে সত্য কথা গোপন করেছেন। তিনি নিজেও জানেন অন্যায় করছেন তারপরও স্টাফদের জন্য এটা করছেন বলে আমার ধারণা। সবার জবাব পাওয়ার পর প্রয়োজনে স্পিকার নেতৃত্বে তাদের ডাকা হবে।”

    দরকার পড়লে বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য কমিটি সরেজমিনেও ওইসব ফ্ল্যাট পরিদর্শনে যাবে বলেও জানান কমিটির এই সভাপতি।

    চিফ হুইফ আ স ম ফিরোজ বলেন, ‘‘ফ্ল্যাট ছেড়ে দেওয়ার বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ। এটা তো মানা সবার জন্য ম্যান্ডেটরি। প্রধানমন্ত্রী যখন বলেছেন ‘যারা থাকেন না’। এরপর তো তাদের নিজেদেরই বোঝা উচিৎ থাকি কী থাকি না। প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশের পর চিঠি দেয়ার দরকার ছিল না। তারপরও আমরা চিঠি দিয়েছি।”

    এর আগে গত ১৫ এপ্রিল এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ন্যাম ফ্ল্যাটে সংসদ সদস্যরা না থাকলে বরাদ্দ বাতিলের হুঁশিয়ারি দেন।

    সংসদীয় কমিটির কার্যপত্র থেকে জানা গেছে, মানিক মিয়া অ্যাভিনিউ ও নাখালপাড়ার সংসদ সদস্য ভবনে বরাদ্দ ফ্ল্যাট নিয়ে থাকেন না এমন আইনপ্রণেতাদের বাসা ছেড়ে দিতে গত বছরের ২৬ জুলাই চিঠি দেয়া হয়। এতে সাড়া না দেয়ায় ৭ দিনের মধ্যে জবাব দেয়ার সময়সীমা বেঁধে দিয়ে ২৩ এপ্রিল আবারও চিঠি দেয়া হয়।

    বৈঠকে আরও অংশ নেন- কমিটির সদস্য বিরোধীদলীয় প্রধান হুইপ মো. তাজুল ইসলাম চৌধুরী, আব্দুস শহীদ, নূর-ই-আলম চৌধুরী, হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি, পঞ্চানন বিশ্বাস, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মো. আসলামুল হক এবং তালুকদার মো. ইউনুস।

    সংবাদ প্রতিদিন বিডি। সালাউদ্দিন আহমেদ 

    (Visited 22 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *