Templates by BIGtheme NET
শিরোনামঃ
Home / Slide Show / আ.লীগ মনে করে তারাই রাষ্ট্র, তারাই দেশ, তারাই সবকিছু: মির্জা ফখরুল – Songbad Protidin BD

আ.লীগ মনে করে তারাই রাষ্ট্র, তারাই দেশ, তারাই সবকিছু: মির্জা ফখরুল – Songbad Protidin BD

  • ১২-০৮-২০১৭
  • c3aebb1b22c8fb1ce8bdfb8891b7de29-MIRZA-FAKHRULসংবাদ প্রতিদিন বিডি প্রতিবেদকঃ  বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগ মনে করে তারাই রাষ্ট্র, তারাই দেশ, তারাই সবকিছু।

    আজ শনিবার বিকেলে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল ইসলাম এ কথা বলেন। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর ৪৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদ এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

    সরকারের দলীয়করণের সমালোচনা করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘এখন দলীয়করণ ভয়াবহ পর্যায়ে। আপনার গোষ্ঠীর মধ্যে যদি কেউ বিএনপি করে, তাহলে আপনি নাই। শুধু ক্রীড়াঙ্গনে নয়, সর্বক্ষেত্রে এই অবস্থা। আওয়ামী লীগ অত্যন্ত সংকীর্ণমনা রাজনৈতিক দল। তারা নিজের বাইরে কিছু চিন্তা করতে জানে না, নিজের মানুষগুলো ছাড়া অন্য কাউকে চেনে না এবং রাষ্ট্র-দেশ বলতে তারা মনে করে তারাই রাষ্ট্র, তারাই দেশ, তারাই সবকিছু। যার ফলে সর্বত্র এত অন্যায়, অবিচার। এর ফলে বাধ্য হয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বলা হচ্ছে, আওয়ামী লীগ সরকার দলীয় সংকীর্ণতায় চলে গেছে এবং একটা দানবে পরিণত হয়েছে।’

    সরকারের ব্যর্থতায় দেশ ‘খাদের শেষ প্রান্তে’ পৌঁছে গেছে বলে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের এখান থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। এর জন্য সবাইকে চেষ্টা করতে হবে, সবাইকে ভাবতে হবে। আমরা যদি একটা জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করতে না পারি, আমরা দলীয় সংকীর্ণতার ঊর্ধ্বে উঠতে না পারি, তাহলে আমরা আমাদের যে লক্ষ্য জনগণের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন করা, মধ্যম আয়ের দেশ করা, একটা সমৃদ্ধ বাংলাদেশ নির্মাণ করা—সেই লক্ষ্যে আমরা পৌঁছাতে পারব না।’

    সরকারের বেসামাল অবস্থা
    এদিকে জাতীয় প্রেসক্লাবে আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি সংসদ আয়োজিত পৃথক আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের পূর্ণাঙ্গ রায়ের পর মন্ত্রীদের বক্তব্যে সরকারের বেসামাল অবস্থা প্রতীয়মান হচ্ছে।
    মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘মন্ত্রীদের বক্তব্য আপনারা দেখছেন, বেসামাল অবস্থা। তারা জানে, এ দেশের মানুষ যদি একবার ভোট দেওয়ার সুযোগ পায়, আওয়ামী লীগের পাত্তা থাকবে না। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজেই বলেছেন, আগামী নির্বাচনে যদি তারা বিজয়ী না হয়, তাদের নেতা-কর্মীদের পিঠের চামড়া থাকবে না, তাদের পালানোর পথ থাকবে না। তারা এত ভয় ও আতঙ্কের মধ্যে আছে।’

    (Visited 21 times, 1 visits today)

    আরও সংবাদ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    *